আকিলশাহ বাজার কমিটি গঠনে অনিয়মের অভিযোগ, দুই পক্ষের মাঝে উত্তেজনা

স্টাফ রিপোর্টারঃ  সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের বৃহত্তম বাণিজ্যিক কেন্দ্র আকিলশাহ বাজার পরিচালনা পরিষদের নবগঠিত কমিটিকে কেন্দ্র করে অনিয়ম,স্বেচ্ছাচারিতা ও অব্যবস্থাপনার অভিযোগ উত্তাপন করেছেন একপক্ষ।

সাধারণ ব্যবসায়ীরা ওই কমিটিকে নিয়মবর্হিভতু,অগণতান্ত্রিক ও ব্যক্তিস্বার্থ কেন্দ্রিক বলে অভিযোগ করছেন ।
এ নিয়ে আকিলশাহ বাজারের ব্যবসায়ীমহল ও বাজারের উপর নির্ভরশীল বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষের মাঝে বিরাজ করছে তীব্র অসন্তোষ ও ক্ষোভ । সৃষ্টি হয়েছে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া, কমিটি নিয়ে বিরোধ ক্রমশ বাড়ছে।
জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার ১০ অক্টোবর আকিলশাহ বাজার পরিচালনা পরিষদের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে নানান অভিযোগ উঠে। অত্র বাজারের অধিকাংশ ব্যবসায়ী ও বাজারের উপর নির্ভরশীল বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষের অভিযোগ কমিটি গঠনের সবক্ষেত্রেই স্বেচ্ছাচারিতা ও অগণতান্ত্রিক মনোভাবের পরিচয় দিয়েছে নতুন কমিটি গঠনে । অধিকাংশ ব্যবসায়ীর মতে এই কমিটি বহাল থাকলে বাজারের অতীত ঐতিহ্য, মর্যাদা ও সুনাম ক্ষুন্ন হবে এবং এ অবস্থা চলতে থাকলে যেকোনো সময় অপ্রত্যাশিত ঘটনা ঘটার আশঙ্কা করছেন অনেকেই।
এদিকে অত্র বাজার কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও কুলঞ্জ ইউনিয়ন সাবেক চেয়ারম্যান আহাদ মিয়া বলেন আকিলশাহ বাজার পরিচালনায় মনগড়া কমিটি গঠন করা হয়েছে। পূর্বপরিকল্পিত পাতানো কমিটি গঠন করায় আমি এই কমিটির প্রতি অনাস্থা জানিয়ে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করছি, অবিলম্বে অত্র বাজারের মনগড়া অবৈধ পরিচালনা কমিটি ভেঙে  বাজারের সকল ব্যবসায়ী এবং  এলাকার সকল গণ্যমান্য মানুষের মতামতের ভিত্তিত্বে নতুন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হোক।
সাবেক চেয়ারম্যান আহাদ মিয়ার সাথে একমত হয়ে বাজার ব্যবসায়ী মাওলানা রুহুল আমীন এবং শিশু মিয়া সহ বেশ কয়েকজন বলেন- অবিলম্বে এই কমিটি বাদদিয়ে নতুন কমিটি গঠনে মধ্যদিয়ে বাজারের শান্তি শৃংখলা ফিরিয়ে আনুন।
এদিকে প্রায় ৮০ শতাংশ স্বাক্ষরিত বাজার ব্যবসায়ী, বাজারের ভিট মালিক এবং কিছু উপদেষ্টা সহ একটি অভিযোগ পত্র বর্তমান নবগঠিত উপদেষ্টামন্ডলীর সভাপতি এবং কুলঞ্জ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মুজিবুর রহমান’র কাছে দেওয়া হয়েছে।
এদিকে নবগঠিত কমিটির সেক্রেটারি সাজ্জাদ মিয়াকে এবিষয়ে মতামত জানতে কয়েকবার কল দেওয়ার পর কল রিসিভ করলেও সাংবাদিক পরিচয় দেওয়ার পরে “আমি এখন মিটিংয়ে” আছি পরে কল দিবেন বলে ফোনের লাইন কেটে দেন।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :191 বার!

error: Content is protected !!
JS security