ওমিক্রন ঠেকাতে যুক্তরাজ্যে জরুরি অবস্থা ঘোষণা


আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ‘ওমিক্রন’ পুরো বিশ্বের নতুন করে মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এর মধ্যেই ওমিক্রন আতঙ্কে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন। বোববার সন্ধ্যায় এক টেলিভিশন বিবৃতিতে তিনি এ ঘোষণা দেন।

বিবৃতিতে জনসন বলেন, ‘ওমিক্রনের একটি উত্তাল ঢেউ আসছে। আর এটা নিয়ে কারো কোনো সন্দেহ থাকা উচিত নয়। সেটি রোধে এই সপ্তাহ থেকে ইংল্যান্ডে ১৮ বছরের বেশি বয়সি সবাইকে টিকার বুস্টার ডোজ দেওয়া শুরু হবে।’
বরিস জনসন বলেন, ‘আমি ভয় পাচ্ছি যে, আমরা এখন নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের সঙ্গে যুদ্ধে একটি জরুরি অবস্থার সম্মুখীন হচ্ছি। এটাও এখন স্পষ্ট যে, আমাদের সবার সুরক্ষার জন্য কেবল ভ্যাকসিনের দুটি ডোজ যথেষ্ট নয়। তবে সুসংবাদ হলো আমাদের বিজ্ঞানীরা আত্মবিশ্বাসী যে তৃতীয় ডোজ বা একটি বুস্টার ডোজ দিয়ে সুরক্ষা পাওয়া সম্ভব। এই মুহূর্তে আমাদের বিজ্ঞানীরা বলতে পারেন না যে ওমিক্রন অতিসংক্রামক প্রবণতা কম। এবং এমনকি যদি এটি সত্য প্রমাণিত হয়। আমরা ইতিমধ্যেই জানি যে, এটি অনেক বেশি সংক্রমণযোগ্য। এটি দুঃখজনকভাবে আমাদের অনেক মৃত্যুর দিকেও নিয়ে যেতে পারে।’

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বিবৃতি দেওয়ার ঠিক কয়েক ঘণ্টা আগে যুক্তরাজ্যে করোনার সতর্কতা সংকেত বেড়ে ৪ হয়েছে। লেভেল চার মানে করোনার উচ্চ বা ক্রমবর্ধমান ট্রান্সমিশন। সর্বশেষ গত মে মাসে দেশটিতে সতর্কতা এই অবস্থায় ছিল। সূত্র: বিবিসি।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :175 বার!

JS security