গুলি টেয়ারগ্যাস দিয়ে গণতন্ত্রের আন্দোন ঠেকানো যাবেনা… কলিম উদ্দিন মিলন

বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে হবিগঞ্জের শান্তিপূর্ণ সমাবেশে পুলিশের নির্বিচারে গুলি বর্ষণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে বিক্ষোভ মিছিল শেষে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম নুরুলের সঞ্চালনায়, জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সাংসদ কলিম উদ্দিন মিলন বলেছে, কি অপরাধ ছিল আমার হবিগঞ্জের ভাইদের।

দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে। মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন হাসপাতালে। তার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে গতকালকে হবিগঞ্জে সমাবেশ ছিল। সে সমাবেশে স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশারফ হোসেন, কেন্দ্রীয় নেতা জয়নাল আবেদীন ফারুক সহ কেন্দ্রীয় নেতারা ছিলেন। খালেদা জিয়ার মুক্তির সমাবেশে শেখ হাসিনার পুলিশ বাহিনী হামলা করে আমাদের শত শত নেতা কর্মীকে আহত করেছে। ঢাকায় আমাদের আহত এক ভাইয়ের চোখে অপারেশন চলছে। সারাজীবনের জন্য তার দৃষ্টি শক্তি হারিয়ে যাবে। জরুরী ভিত্তিতে আহতদের সিলেট থেকে ঢাকায় প্রেরণ করা হচ্ছে। ঢাকা, সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জের হাসপাতালে আহতদের চিকিৎসা চলছে। এ সমাবেশ থেকে আমরা পরিস্কার ভাষায় জানিয়ে দিতে চাই। বাংলাদেশে গনতন্ত্রের বিজয় আসছে সেই বিজয় ও আন্দোলনকে পুলিশ দিয়ে থামানো যাবে না। আমরা বলেদিতে চাই বাংলাদেশের মানুষ আজ জেগে গেছে। তারা যে কোনোর বিনিময়ে, নেতা কর্মীরা সর্ব্বোচ্চ ত্যাগ শীকার করবে। পুলিশ, লাটি, গুলি টিয়ারগ্যাস দিয়ে আন্দোলন টেকিয়ে রাখা যাবে না। অভিলম্ভে খালদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে নিয়ে সুচিকিৎসার দাবি জানাচ্ছি।

এসময় জেলা বিএনপি ও অঙ্গ সহযোগি সংগঠনের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :88 বার!

JS security