গোলাপগঞ্জের বাঘায় যুবকের উপর নির্যাতনের মামলার আরেক আসামি আটক

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধিঃ-  সিলেটের গোলাপগঞ্জের বাঘায় জাহেদ আহমদের (৩০) উপর অমানসিক নির্যাতনের ঘটনায় এজহারভুক্ত আসামী হাছন আলী (৫৫) কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার রাত ৪টার দিকে উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের নিশ্চিন্ত গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি বাঘা ইউনিয়নের রস্তমপুর গ্রামের মৃত ইসহাক আলীর পুত্র। এর আগে ঘটনার দিন মূল আসামী রাইয়ব আলী ওরফে ছানা মিয়াকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা, গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি (অপারেশন) দেলোয়ার হোসেন জানান, গত মঙ্গলবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে একদল পুলিশ ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের নিশ্চিন্ত গ্রামে অভিযান চালান। এসময় তার এক।আত্মীয়ের বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি একেএম ফজলুল হক শিবলি আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় প্রধান আসামী সহ ২জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকি আসামীদের ধরতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

উল্লেখ্য,  রস্তমপুর গ্রামের ছানু মিয়া হুন্ডির ব্যবসা করতেন। তার হুন্ডির টাকা আনা-নেওয়ার কাজ করতেন বাঘা দৌলতপুর গ্রামের বাছই মিয়ার পুত্র জাহেদ। সম্প্রতি হুন্ডির কিছু টাকা সিলেট থেকে খোয়া যায়। ছানু মিয়ার সন্দেহ- জাহেদ এই টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

এই সন্দেহ থেকে গত ৯ ফেব্রুয়ারি জাহেদকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে বর্বর নির্যাতন করেন। এরপর তার চোখে চুন ঢেলে দেন। চুন ঢেলে দেওয়ার জাহেদ আর কোনোদিন চোখে দেখতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন ওসমানী হাসপাতালের চিকিৎসকরা। এ  নির্যাতনের ঘটনায় বাছই মিয়া বাদী হয়ে ছানু মিয়াসহ ৩ জনকে আসামী করে গোলাপগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করলে পরদিন ১০ ফেব্রুয়ারি সকালে গোলাপগঞ্জের বাঘা ইউনিয়নের রস্তমপুর থেকে ছানু মিয়াকে আটক করে পুলিশ।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :31 বার!

error: Content is protected !!
JS security