চৌহাট্টায় ছাত্রলীগ-পরিবহন শ্রমিক সংঘর্ষ; গাড়ী ভাঙচুর, সড়ক অবরোধ


গ্লোবাল সিলেট ডেস্কঃ-পরিবহন শ্রমিকদের উপর শ্রমিকলীগ ও ছাত্রলীগ কর্মীদের হামলার জের ধরে চৌহাট্টা-রিকাবীবাজার সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন শ্রমিকরা।বুধবার (৩০ মে) ইফতারের পর থেকে রাত দশটা পর্যন্ত রাস্তা অবরোধ করে রাখে শ্রমিকরাপ্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, বুধবার বিকেলে আবু সিনা ছাত্রাবাসের সামনে মোটর সাইকেলের সাথে একটি মাইক্রোবাসের ধাক্কা লেগে মাইক্রোবাসটি কিছুটা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এসময় চৌহাট্টা মাইক্রোবাস স্ট্যান্ডের সদস্য আব্দুল হকসহ কয়েকজন শ্রমিক মোটর সাইকেলটি আটকে তার কাছে ক্ষতিপুরণ দাবি করেন। এ সময় ছাত্রলীগকর্মী ও ওসমানী হাসপাতালের কর্মচারী সুলতান মাহমুদ রিপন আরো কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মীকে সাথে নিয়ে ঘটনা মিটমাট করে দেবেন বলে এগিয়ে আসেন। এ নিয়ে পরিবহন শ্রমিকদের সাথে বাক বিতন্ডার সৃষ্টি হলে ছাত্রলীগ কর্মীরা আব্দুল হক ও মাইক্রোবাসের চাল ইয়াহিয়াকে বেধড়ক পেটান। এসময় পরিবহন শ্রমিকরা ধাওয়া দিলে ছাত্রলীগকর্মীরা আবু সিনা ছাত্রাবাসে ঢুকে পড়েন।পরে সন্ধ্যায় পরিবহন শ্রমিকরা এ নিয়ে বৈঠকে বসলে ছাত্রলীগ কর্মী রিপন, সুমনসহ ২০/২৫ জনের একটি দল সে বৈঠকে অতর্কিতে হামলা চালায়, এতে ওসমানী মেডিকেল কলেজ শাখা মাইক্রোবাস স্ট্যান্ডের সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল আহত হন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পরিবহন শ্রমিকরা সন্ধ্যার পর থেকে চৌহাট্টা-রিকাবীবাজার সড়ক অবরোধ করে রেখেছেনএ ব্যাপারে সিলেট জেলা পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হাসনাত বলেন, ‘ছাত্রলীগকর্মী রিপন, সুমনসহ আরো কয়েকজন কোনো রকম উস্কানি ছাড়াই আমাদের উপর হামলা চালায়। জনসাধারণের ভোগান্তির কথা বিবেচনা করে আমরা অবরোধ তুলে নিয়েছি, তবে এঘটনায় জড়িতদের শাস্তির আওতায় না আনলে আমরা আবারো কঠোর কর্মসূচী দিতে বাধ্য হবো।’

তবে দীর্ঘক্ষণ শ্রমিকরা টায়ার জ্বালিয়ে রাস্তা অবরোধ করে রাখলেও পুলিশ ছিলো নির্বিকার। এসময় পরিবহণ শ্রমিকদের লাঠিসোঁটা নিয়ে আবুসিনা ছাত্রাবাসের ফটকের সামনে অবস্থান নিতে দেখা যায়।পুলিশের ভুমিকার ব্যাপারে জানতে চেয়ে কোতোয়ালী থানার ওসি গৌছুল হোসেন বলেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে, তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :291 বার!

JS security