জনসেবাকে ইবাদত মনে করে কাজ করে যাচ্ছি

স্টাফ রিপোর্টারঃ- হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট মোঃ আবু জাহির এমপি বলেছেন, যে কোন দেশের প্রধানমন্ত্রীর কর্মকান্ডের উপর নির্ভর করে ওই দেশের অগ্রগতি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে। ইতোমধ্যে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা অর্জনসহ বাংলাদেশের অবস্থান মহাকাশেও নিয়ে গেছে বর্তমান সরকার। এতেই প্রমাণিত হয় দেশরত্ন  শেখ হাসিনা বাংলাদেশের যোগ্য প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া দেশে সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গীবাদসহ বিভিন্ন অপরাধের উত্থান ঘটিয়েছেন। নিজের কর্মকান্ডেই খালেদা জিয়া অযোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন। তারা দেশের সম্পদ লুটপাট এবং বিভিন্ন ভুল সিদ্ধান্ত নেয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশকে অনেক পিছিয়ে দিয়েছিল। বিএনপি-জামায়াতের মাধ্যমে হয়ে যাওয়া ক্ষতিপূরণ করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে বর্তমান সরকার। গতকাল শনিবার শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী কাজ করে যাচ্ছি  লীগ আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। এমপি আবু জাহির আরো বলেন, আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে জনগণের উন্নয়নের লক্ষ্যে জনসেবাকে ইবাদত মনে করে উন্নয়ন কর্মকান্ড করে যাচ্ছি। সারাজীবন জনগণের উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যেতে সকলের দোয়া কামনা করে এমপি আবু জাহির বলেন, আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর যে উন্নয়ন কাজ করেছি তা আপনাদের সামনেই। এই উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি আগামীতেও নৌকায় ভোট দেয়ার আহবান জানান। এ সময় উপস্থিত জনতা হাত তুলে আগামী নির্বাচনেও বিপুল ভোটে এমপি আবু জাহিরকে বিজয়ী করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন। শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস সামাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ বুলবুল খানের পরিচালনায় ইফতার মাহফিলে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ সরদার, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাইদুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক মহিবুর রহমান মাহী, আওয়ামী লীগ নেতা ওসমান আলী মিলু, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি গাজিউর রহমান এমরান, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম প্রমুখ। ইফতার মাহফিলে বিভিন্ন স্থানের আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের সকল নেতাকর্মী এবং স্থানীয় লোকজন স্বতস্ফুর্তভাবে অংশ গ্রহণ করেন।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :555 বার!

JS security