জামিন পেয়েই স্ত্রীকে তালাক দিলেন মডেল আসিফ

স্ত্রী শামীমা আক্তারের সঙ্গে আপোষের শর্তে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় জামিনে বের হওয়ার পরই তাকে তালাক দিয়েছেন মডেল আসিফ। তালাকের কারণ হিসেবে স্ত্রীর অসৎ চরিত্র, বনিবনা হচ্ছে না এবং আরও কিছু বিষয় উল্লেখ করেন তিনি।

গতকাল মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন শামীমা আক্তার। তিনি জানান, ২ এপ্রিল তালাক দিয়েছেন আসিফ। আর সেই তালাকনামা ডাকযোগে শামীমার বাসায় পাঠানো হয়েছে ২৩ এপ্রিল।

২০১৫ সালের ৭ সেপ্টেম্বর কানাডা প্রবাসী শামীমা আক্তার অর্নির সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন কাজী আসিফ। কাজী আসিফ রহমান বেশকিছু বিজ্ঞাপনে মডেল হয়ে সবার নজর কাড়েন। এর মধ্যেই তার সঙ্গে শামীমার সঙ্গে টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়।

সম্প্রতি স্ত্রী শামীমা আক্তারের কাছে ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন আসিফ। ওই ঘটনায় চলতি বছরের ৬ মার্চ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এ শামীমা বাদী হয়ে মামলা করেন।

গত ২৩ এপ্রিল রাত ১২টার দিকে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন থেকে আসিফকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। মালয়েশিয়া থেকে নাটকের শুটিং শেষে দেশে ফিরছিলেন তিনি।

পরদিন সকালে আদালত দুই পক্ষের শুনানি শেষে আসিফকে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। ২৫ এপ্রিল স্ত্রীকে আর নির্যাতন করবেন না এবং সন্তানের ভরণপোষণ করবেন—এই শর্তে তাঁকে জামিন দেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক শফিউল আজম।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :584 বার!

JS security