টয়লেট ভাঙতে বাধা দেওয়ায় বড়ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

ঢাকা সংবাদদাতা: নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলায় টয়লেট ভাঙতে বাধা দেওয়ায় বড়ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেছে ছোটভাই।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের পুরুলিয়া গ্রামে ওই ঘটনা ঘটে।

নিহত বড়ভাইয়ের নাম আব্দুল খালেক (৫৫)। তিনি উপজেলার পুরুলিয়া গ্রামের মরহুম রওশন আলীর ছেলে।
পুরুলিয়া গ্রামের মরহুম রওশন আলীর দুই ছেলে আব্দুল খালেক (৫৫) ও আব্দুল মালেক (৫০)।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বড়ভাই খালেকের একটি টয়লেট আব্দুর রাজ্জাকের ঘরের পাশে রয়েছে। আব্দুর রাজ্জাকের ঘরে ওই টয়লেটের গন্ধ লাগে। বারবার ওই টয়লেট অন্যত্র সরানোর জন্য বড়ভাই আব্দুল খালেককে বললে তিনি তা কর্ণপাত করেন না।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে টয়লেটের গন্ধ সহ্য করতে না পেরে ছোটভাই মালেক ও তার ছেলে রাজ্জাক টয়লেটটা ভাঙতে শুরু করে।বড়ভাই টয়লেট ভাঙতে বাধা দেয়। ওই সময় ছোটভাই আব্দুল মালেক ও তার ছেলে আব্দুর রাজ্জাক ক্ষিপ্ত হয়ে হাঁসুয়া ও বঁটি দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে তার নাড়িভুড়ি বের করে ফেলে।

স্থানীয়রা গুরুতর জখম অবস্থায় বড়ভাই আব্দুল খালেককে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. আব্দুর রাজ্জাক জানান, আসামিদের গ্রেফতারে জোর তৎপরতা চলছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :63 বার!

JS security