দক্ষিণ সুরমায় বিয়ের প্রলোভনে তরুণীকে গণ-ধর্ষণ-আটক ২

দক্ষিণ সুরমায় বিয়ের প্রলোভনে তরুণীকে গণ-ধর্ষণ: আটক দিরাইয়ের জসিম ও হোটেল আল তকদিরের মালিক সৈয়দ নিয়াজ উদ্দিন

স্টাফ রিপোর্টার:- সিলেটের দক্ষিণ সুরমার একটি হোটেলে বিয়ের প্রলোভনে এক তরুণীকে গণধর্ষণ করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ধর্ষিতার লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ দুজনকে আটক করেছে।
সিলেটের গোয়াইনঘাট থানার ঠাকুর বাড়ি এলাকার এক তরুণীর (১৯) সাথে সুনামগঞ্জের দিরাই এলাকার জসিম উদ্দিনের (২৫) সাথে মোবাইল ফোনে প্রেমের সম্পর্ক  গড়ে উঠে। জসিম দীর্ঘদিন কথা বলে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই তরুণীকে গত ২০ এপ্রিল দক্ষিণ সুরমার হোটেল আল-তকদিরে নিয়ে আসে। তারপর ওই তরুণীর সাথে থাকা জন্ম সনদ, পাসপোর্ট, আইডি কার্ড ও মোবাইল ফোন কেড়ে নিয়ে একটানা ১১ দিন উক্ত হোটেলে বন্দি রেখে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে জসিম গংরা। ৩০ এপ্রিল ওই তরুণী কৌশলে চাঁনীঘাটস্থ হোটেল আল-তকদির থেকে পালিয়ে তার বান্ধবী নাছিমার বাসায় আশ্রয় নেয়। পরবর্তীতে গত বৃহস্পতিবার (০৩ মে) এ ব্যপারে চারজনকে আসামী করে দক্ষিণ সুরমা থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে থানা পুলিশ তা মামলা আকারে গ্রহণ করে।
আসামীরা হচ্ছে, সুনামগঞ্জের দিরাইয়ের জসিম উদ্দিন, হোটেল আল তকদিরের মালিক সৈয়দ নিয়াজ উদ্দিন, একই হোটেলের স্টাফ জাকির ও নূর মিয়া। লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ ওইদিন রাতেই দক্ষিণ সুরমার চাঁনীঘাটস্থ হোটেল আল-তকদির থেকে প্রধান আসামী জসিম উদ্দিন ও হোটেল মালিক সৈয়দ নিয়াজ উদ্দিনকে আটক করে ।
দক্ষিণ সুরমা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খায়রুল ফজল দু’জন আটকের সত্যতা স্বীকার করে বলেন,  মামলার অপর দুই আসামী ধরতে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :468 বার!

JS security