দিরাইয়ে ছুরিকাঘাতে ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী গুরুতর আহত !

 

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার করিমপুর ইউনিয়নের আসন্ন নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী তপু দাস (৩৮) দুষ্কৃতকারীর ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছেন।

বুধবার দিবাগত রাত ২টার দিকে ইউনিয়নের পুর্ব চান্দপুর গ্রামের শিবমন্দির সংলগ্ন কীর্তন ঘরে এ ঘটনা ঘটে।

চান্দপুর গ্রামবাসী সূত্রে জানা যায়, রাত আড়াইটার দিকে পেটের বাম পাশে ছুরিবিদ্ধ অবস্থায় তপু দাস গ্রামের কয়েক বাড়িতে গিয়ে তাকে হাসপাতালে নিতে অনুনয় করে। উত্তর চান্দপুর গ্রামের সুরঞ্জিত বর্মন তপুকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। খবর পেয়ে স্বজনরা হাসপাতালে ছুটে যান। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তপুকে প্রথমে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল ও সেখান থেকে সিলেটে নিয়ে যান স্বজনরা।
দিরাই থানা পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ব্যক্তিজীবনে অবিবাহিত তপু একজন ভবঘুরে ও মাদকাসক্ত। পেশায় ওয়ার্কশপের মিস্ত্রি। বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৮নং ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে চার প্রার্থীর মধ্যে তৃতীয় অবস্থানে থেকে জামানত হারায়।
তবে তপু দাসের ভাই গোপেশ দাস ওরফে সুজন দাস এ ঘটনায় নৌকা প্রার্থীকে দায়ী করে বলেন, আমার ভাই তপু করিমপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মনোনয়ন দাখিলের পর থেকে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিতে আমাদের একই গ্রামের নৌকার প্রার্থী লিটন দাস চাপ সৃষ্টি করে। টাকা-পয়সার প্রলোভন দেয়। আমার ভাই এতে রাজী না হয়নি। বুধবার প্রচারণা শেষে দিবাগত রাত ২টার দিকে চান্দপুর শিব মন্দির সংলগ্ন কীর্তনের ঘরে ঘুমিয়েছিল। এসময় তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা হয়।

দিরাই থানার ওসি মো. আজিজুর রহমান বলেন, আমরা ঘটনার বিষয়ে খোঁজখবর নিচ্ছি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :76 বার!

JS security