দিরাইয়ে পল্লী বিদ্যুতের সীমাহীন লোডশেডিং, জন দুর্ভোগ চরমে 

স্টাফ রিপোর্টারঃ–  দিরাই পল্লী বিদ্যুতের খামখেয়ালিপনার মাত্রা ছাড়িয়েছে, সীমাহীন লোডশেডিংয়ে জন দুর্ভোগ চরমে, ব্যাহত হচ্ছে ব্যবসা বানিজ্য।  পার্শ্ববর্তী এলাকায় বর্তমানে বিদ্যুৎ সরবরাহ মোটামুটি স্বাভাবিক থাকলেও দিরাই-শাল্লা অঞ্চলের পল্লী বিদ্যুত গ্রাহকরা রয়েছেন বেশি বেকায়দায়।  বিদ্যুতের ভেল্কিবাজিতে দিনে রাতে লোডশেডিং ১৮-২০ ঘণ্টা..!!!  গড়ে রাতে বিদ্যুৎ থাকে ৪-৬ ঘণ্টা.!  দিনের বেলা কালেভদ্রে দেখা যায় কয়েক মিনিটের জন্য.!  বিদ্যুতের ভানুমতীর খেলে শতশত গ্রাহকদের ফ্রিজের রক্ষিত মাছ, মাংস ও সবজি নষ্ট হচ্ছে নূন্যতম সময় বিদ্যু না থাকায়।এছাড়াও আসা-যাওয়ার ভেল্কিতে বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি নষ্ট হচ্ছে অনেকাংশে। এব্যাপারে বিদ্যুৎ বিতরণ কর্তৃপক্ষের বক্তব্য লাইনে সংস্কার কাজ চলছে কিছুদিনের মধ্যে স্বাভাবিক হবে, ঝড়বৃষ্টি হয়েছে লাইন ছিড়ে গেছে বলেই দায়িত্ব শেষ..! একসময় ছাতক হতে জরাজীর্ণ লাইনে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার অভিযোগে আসা-যাওয়ার নিয়তি মেনে নিতেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ, দিরাই ও শাল্লাবাসী।আওয়ামী সরকারের টানা ২য় মেয়াদের শেষ দিকে সুনামগঞ্জ জেলাবাসীর বিদ্যুৎ সুবিধা নিশ্চিত করতে ১৩৩ কেবি বিদ্যুৎ সরবরাহ লাইন উদ্বোধন করা হয় শহরের ওয়েজখালীর হাসান রাজা তোরন ও ব্রিজ সংলগ্ন জমিতে। তারপর থেকে বিদ্যুতের লোডশেডিং কমে সহনীয় পর্যায়ে চলে আসে।  কিন্তু দিরাই শাল্লার জনগণ দিনে রাতে থাকে ৫-৭ ঘন্টার উর্ধ্বে  পাচ্ছে না বিদ্যুতের দেখা। দিরাই পৌরসভা ও গুরুত্বপূর্ণ আবাসিক ও বানিজ্যিক এলাকায় পিডিপি সংযোগ থাকায় লোডশেডিং সহনীয় পর্যায়ে আছে।  এছাড়াও লোডশেডিং হলে  শিক্ষিত, সচেতন ও রাজনৈতিক নেতাকর্মীরা কর্তৃপক্ষের কাছে চাপ প্রয়োগ করে দ্রুততম সময়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু করতে বাদ্য করেন কিন্তু গ্রামীণ এলাকায় পল্লী বিদ্যুতায়ন কর্তৃপক্ষের খামখেয়ালি নিয়ে নেতাকর্মীদের কোন মাথাব্যথা নেই।  সাধারণ মানুষেরও তেমন প্রতিক্রিয়া নেই, দিনে কখন আসলো আর গেলো তা নিয়ে ওদের মাথাব্যথা নেই।ব্যবসায়ীদের আর্থিক ক্ষতির মুখেও নেই প্রতিবাদ প্রতিরোধ।  পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্তাব্যক্তিদের উপর কোনরূপ চাপ না থাকায় কমছেনা তাদের স্বেচ্ছাচারিতা। ঝড়বৃষ্টি হলে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হলে আবহাওয়া স্বাভাবিক হওয়ার পরও দেখা মিলেছে না বিদ্যুতের। জনজীবন স্বাভাবিক রাখতে এবং ব্যবসা বানিজ্যের গতি অব্যাহত রাখতে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ চালু রাখতে সরকার ও জনপ্রতিনিধি এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন ভুক্তভোগী জনসাধারণের।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :51 বার!

error: Content is protected !!
JS security