দিরাইয়ে বিবদমান দুই পক্ষের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে ৩০ জন আহত

স্টাফ রিপোর্টারঃ- সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের আনোয়ারপুর গ্রামের আব্দুল কাইয়ূম ও টিপু বাহিনীর অতর্কিত হামলায় সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আজাদুল ইসলাম রতন এর পক্ষের ২০ জন আহত হয়েছে। ঘটনার বিবরণে জানা যায়,আনোয়ারপুর গ্রামের আঃলীগ নেতা এড.রতনের গ্রুপের সৈকত মিয়ার লোকজন পাশের বোরো জমিতে পানি সেচ দিতে গেলে একই গ্রামের টিপু মিয়ার লোকজন বাধাঁ দেয়াকে কেন্দ্র করে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে কাইয়ুম বাহিনীর টিপু মিয়া ও তার লোকজন এড. রতনের এ-র আত্মীয় সৈকত মিয়াসহ তার লোকজনের উপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় এতে রতনের পক্ষের ২০ জন আহত হয়। তবে টিপু মিয়ার লোকজন আহত হয়েছেন বলে জানা যায়নি। কাইয়ুম বাহিনীর লোকেরা সৈকত মিয়ার লোকজনের উপর বোর জমিতে হামলার পর তাদের বাড়িঘরে হামলা ও ভাংচুর চালায়, এতে প্রায় ২০-২৫ টি টিন সেট ঘরের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা যায়।
হামলার সময় কয়েকজন নারীও আহত হন বলে আহতরা জানান। আহতদের তাৎক্ষণিকভাবে দিরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হলে কয়েকজনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।
বাকি আহতদের মধ্যে ১০ জনকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে এবং গুরুতর ৫জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।
আজ বুধবার সকাল ৭টার সময় এই রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে দিরাই থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।
গুরতর আহত- সমুজ মিয়া, সাইফুল, মাকসুদ, রিয়াছত আলী, আবু তাহের, আব্দুস ছালাম সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া জাহাঙ্গীর(৪৫), নাছির, সফর আলী, লুৎফুর রহমান, আজার হোসেন, আফরোজ আলী, আবু লেইছ, মাফিয়া বেগম কে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :810 বার!

JS security