ধারণ করা ভিডিও দেখিয়ে দুই বছর ধরে ধর্ষণ

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় প্রেমিকার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের ভিডিও ধারণ করে সেই ভিডিও দেখিয়ে টানা দুই বছর ধর্ষণের অভিযোগে বুলবুল আহমেদ বিপুল (৩০) নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। তরুণীর করা মামলায় তাকে আটক করা হয়। আটক ওই যুবক উপজেলার গজারমারা গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে। মেয়েটির বাড়ি পার্শ্ববর্তী জেলা সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায়।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রায় চার বছর আগে ফেসবুকের মাধ্যমে বিপুলের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। এরপর তাদের মধ্যে প্রেম হয়। এর কিছু দিন পর বিপুল তাকে দেখা করার জন্য চাপ দিলে মেয়েটি তার সঙ্গে দেখা করে। ওই সময় বিপুল তার বোনের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে মেয়েটির সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করে এবং কৌশলে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারণ করে।

পরে সেই ভিডিও দেখিয়ে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে তার গর্ভের বাচ্চা নষ্ট করতে বাধ্য করেন বিপুল। এরপর মেয়েটি বিপুলকে বিয়ের জন্য চাপ দেন কিন্তু বিপুল বিষয়টি এড়িয়ে যেতে শুরু করে। পরে গত বছর ২৮ ডিসেম্বর বিয়ের দাবিতে বিপুলের বাড়িতে উপস্থিত হন মেয়েটি। বিষয়টি সুরাহা না হওয়ায় মেয়েটি জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ নাম্বারে কল দিয়ে পুলিশের সহায়তা চান।

সর্বশেষ ঘটনাস্থল পার্শ্ববর্তী ফরিদপুর থানা হওয়ায় সেখানেই তার মামলা নথিভুক্ত হয়। এরপর দুই সপ্তাহ পালিয়ে থাকা বুলবুলকে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ রোববার সকালে আটক করে।

ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফয়সাল বিন আহসান বলেন, সর্বশেষ ধর্ষণের ঘটনাটি ফরিদপুর হওয়ায় ওই থানায় মামলা হয়। তাই বিপুলকে আটক করে ফরিদপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :108 বার!

JS security