নিখোঁজের ১১ দিন পর মিলল টমটম চালকের লাশ

জগন্নাথপুর প্রতিনিধি :-  সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা থেকে নিখোঁজ ১৭ বছর বয়সী কিশোর সাইদুল ইসলামের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ হওয়ার ১১ দিন পর সিলেট জেলার বিশ্বনাথ উপজেলার রশিদপুর থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। বুধবার দিবাগত রাত একটার দিকে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ সাইদুলের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

সাইদুল জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের বাউরকাপন এলাকার শফিক মিয়ার ছেলে। সে টমটম গাড়ি চালাতো।

গত ১১ আগস্ট (রবিবার) ঈদের আগের দিন সকালে বাড়ি থেকে টমটম গাড়ি নিয়ে জগন্নাথপুর উপজেলার পার্শ্ববর্তী বিশ্বনাথ উপজেলার বাগিচা বাজারের উদ্দেশ্যে বের হওয়ার পর থেকে সে নিখোঁজ থাকে। এরপর থেকে তার সন্ধান পাওয়া যায়ানি। এছাড়া তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটিও বন্ধ ছিল। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান না পেয়ে নিখোঁজের বড় ভাই ১১ আগস্ট জগন্নাথপুর থানায় একটি জিডি করেন।

জগন্নাথপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি, তদন্ত) নব গোপাল লাশ উদ্ধারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, লাশটি অনেকটা পঁচে গেছে।

সাইদুলের বড় ভাই রিয়াজুল হক জানান, সাইদুল জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে প্রতিদিন টমটম গাড়ি চালাতো। বিশ্বনাথের বাগিচাবাজারের ভাঙ্গারি ব্যবসায়ী রাসেল মিয়া তার মালামাল জগন্নাথপুর পৌর এলাকার ভবেরবাজারে পৌঁছে দেওয়ার জন্য চুক্তি করেন। চুক্তি মোতাবেক ১১ আগস্ট সকালে গাড়ি নিয়ে বাড়ি থেকে বাগিচার বাজারে যাওয়ার জন্য বের হয়। বাড়ি ফিরতে দেরি দেখে তিনি ভাইয়ের মুঠোফোনে কল দেন। কিন্তু ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার কোন সন্ধান না পেয়ে তিনি জগন্নাথপুর থানায় একটি জিডি করেন। এর ১১ দিন পর সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলা থেকে তার ভাইয়ের লাশ পাওয়া যায়।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :115 বার!

error: Content is protected !!
JS security