অন্তসত্তা স্কুলছাত্রীর গর্ভের সন্তান নষ্টের অভিযোগে প্রেমিক-গ্রেফতার

মোঃ শাহিনুর রহমান, ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধিঃ- নীলফামারীর ডিমলায় স্কুল ছাত্রীকে ফুসলিয়ে তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক। অতপর দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলে ফলে স্কুল ছাত্রীটি  অন্তসত্তা হয়ে পড়ে। ছাত্রীটিকে ঔষধ খেয়ে গর্ভের সন্তান নষ্টের অভিযোগে। প্রেমিক ড্রাইভার শাহিন (২১)কে বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিমলা বাজার থেকে শাহিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে ৩নং ডিমলা সদর ইউনিয়নে মোঃ মশিয়ার রহমান এর কন্যা মোছাঃ মনি আক্তার এবং একই এলাকার গ্রেফতারকৃত শাহিন হলেন দনি তিতপাড়া গ্রামের হাফিজুল ইসলামের পুত্র। গ্রেফতারকৃত শাহিন পেশায় একজন ড্রাইভার। জানা যায়, ডিমলা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেনীর এক (মনি আক্তার) ছাত্রী কে ফুসলিয়ে ও বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে শাহিন দৈহিক সম্পক গড়ে তুলেন। মনি আক্তার গর্ভবতী হয়ে পড়লে গত ২৪ ফেব্রুয়ারী শাহীন জোরপূর্বক গর্ভপাতের ঔষন খাওয়ায়। বুধবার ভোর রাতে ছাত্রীটির (মনি আক্তা) ৪/৫ মাসের মৃত সন্তান প্রসব করেন। ছাত্রীটি (মনি আক্তার) বর্তমানে ডিমলা হাসপাতালে চিকিৎসাধিন রয়েছে।

এ বিষয়ে ছাত্রীটির (মনি আক্তারের) পিতা মশিয়ার রহমান বাদী হয়ে ডিমলা থানায় দায়ের করেন মামলা নং- ২৪ । ডিমলা থানার ওসি মফিজ উদ্দিন শেখ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্কুলছাত্রীকে (মনি আক্তার) ফুসলিয়ে ধর্ষন ও গর্ভপাতের ঘটনায় জড়িত শাহিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। (মনি আক্তার) ছাত্রীটির ডাক্তারী পরীার জন্য নীলফামারী আধুনিক হাসপাতালে সম্পন্ন করা হবে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগাড়ে পাঠানো হবে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :514 বার!

JS security