প্রচারণায় বাধা, আ.লীগ-বিএনপি সংঘর্ষ

গ্লোবাল ডেস্কঃ-  খাগড়াছড়ির রামগড়ে বিএনপি প্রার্থী মো. শহীদুল ইসলাম ভূঁইয়ার ধানের শীষের প্রচারণায় বাধা দেয়ায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীর সঙ্গে বিএনপির সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।এতে খাগড়াছড়ি জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. নাছির শিকদারসহ উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খাগড়াছড়ির রামগড়ের বাস টার্মিনাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূঁইয়ার নেতৃত্বে ধানের শীষ প্রতীকের গণসংযোগ করা হয়।রামগড়ের বাস টার্মিনাল এলাকায় পৌঁছালে লাঠিসোঁটা নিয়ে বিএনপি নেতাকর্মীর ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতাকর্মীরা। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এ সময় লাঠিচার্জ করে উভয় পক্ষের নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে দেয় পুলিশ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে বিজিবি ও অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।স্থানীয় বিএনপি নেতাদের অভিযোগ, ধানের শীষের প্রার্থী মো. শহীদুল ইসলাম ভূঁইয়ার পক্ষে গণসংযোগ ও পথসভায় অংশগ্রহণ করতে রামগড়ে যান খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূঁইয়া। রামগড় পৌর সদরে ধানের শীষের গণসংযোগকালে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে বিএনপির ১৫ নেতাকর্মী আহত হন।রামগড় থানা পুলিশের ওসি তারেক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান বলেন, ওয়াদুদ ভূঁইয়ার গণসংযোগ চলাকালে উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক রণবিক্রম ত্রিপুরা বলেন, বিএনপি নেতাকর্মী নিজেরা হামলার ঘটনা ঘটিয়ে আওয়ামী লীগের ওপর দায় চাপানোর চেষ্টা করছে। হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে খাগড়াছড়ি জেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য ওয়াদুদ ভূঁইয়া হামলাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন।

 

 

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :368 বার!

JS security