বালাগঞ্জের কনু মিয়া হত্যা-খুনির স্বীকারোক্তি

বালাগঞ্জ প্রতিনিধি :- সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার নশিওরপুর গ্রামের কনু মিয়া হত্যা মামলার গ্রেফতারকৃত প্রধান আসামি আব্দুল ওয়াহিদ আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। দুইদিনের রিমাণ্ড শেষে গত শনিবার (২৫ জুলাই) আদালতে সে এ স্বীকারোক্তি প্রদান করেছে।

বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইন-চার্জ গাজী আতাউর রহমান এ ব্যাপারে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, মামলার তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বালাগঞ্জ থানা পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত আব্দুল ওয়াহিদের রিমাণ্ড মঞ্জুর করেন। এরপর গত ২৩ ও ২৪ জুলাই বালাগঞ্জ থানা পুলিশের জিম্মায় দুইদিনের রিমাণ্ড শেষে গত শনিবার (২৫ জুলাই) তাকে আদালতে হস্তান্তর করা হয়। আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিকালে আব্দুল ওয়াহিদ কনু মিয়া হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার বিষয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে।

বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইন-চার্জ গাজী আতাউর রহমান এ ব্যাপারে সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, মামলার তদন্ত অব্যাহত রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৪ জুন দুপুরে বালাগঞ্জের নশিওরপুর গ্রামের কনু মিয়া প্রতিপক্ষ আব্দুল ওয়াহিদের হামলার শিকার হয়ে পরদিন ২৫জুন ভোরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ঘটনায় গত ২৬জুন কনু মিয়ার ছোটবোন নাছিমা বেগম বাদি হয়ে
 বালাগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করা হয়। মামলা নম্বর-০৬।

মামলায় আব্দুল ওয়াহিদকে প্রধান আসামি করা হয়। এছাড়াও দায়েরকৃত মামলায় আব্দুল ওয়াহিদের পিতা আব্দুল কাদির ও ছোটভাই আবু জাহিদকেও আসামি করা হয়েছে।

এরপর মামলার প্রধান আসামি আব্দুল ওয়াহিদকে গত ১৩ জুলাই ভোর ৪টার দিকে সিলেট থেকে গ্রেফতার করা হয়। দায়েরকৃত মামলার অন্য অভিযুক্তরা রয়েছেন।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :162 বার!

JS security