ব্রিটেনে গুলিতে প্রাণ দেয়া মেয়ের ডিগ্রীর সনদ নিলেন মা

আয়া হাশেম নামের এই তরুণীর কথা মনে আছে? ব্ল্যাকবার্ন এলাকায় ২০২০ সালের ১৭ মে রামাদানের ইফতার কিনতে সুপার মার্কেটে যাওয়ার পথে গুলিবিদ্ধ হয়ে প্রাণ হারিয়েছিলেন তিনি। আয়া হাশেমকে লক্ষ্য করে সেদিন গুলি করা হয়নি। ব্ল্যাকবার্ন এর দুই বিবদমান টায়ার কোম্পানির লোকেদের ক্রসফায়ারে পড়ে প্রাণ দিতে হয়েছিল তাঁকে। আয়ার মৃত্যুর দায়ে স্থানীয় টায়ার কোম্পানির মালিক ফিরোজ সুলেমান সহ সাত ব্যাক্তির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়। জুডি চেপম্যান নামে এক মহিলাকেও ১৫ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত।

মৃত্যুর আগে সলফোরড ইউনিভারসিটিতে আইন বিষয়ে অনার্স ডিগ্রির প্রায় অর্ধেকটা সম্পন্ন করে ফেলেছিলেন ১৯ বছর বয়স্ক আয়া হাশেম। বেঁচে থাকলে এই সময়ের মধ্যে হয়তো তাঁর আইন বিষয়ে ডিগ্রী সম্পন্ন হয়ে যেতো। ২৯ নভেম্বর আয়ার সহপাঠীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে অংশ নিয়ে তাদের সনদ সংগ্রহ করে। ডিগ্রী সম্পন্ন করতে না পারলেও আয়ার প্রতি সম্মান জানিয়ে তাঁকে ডিগ্রীর সনদ দেয় সলফোরড ইউনিভারসিটি। আয়ার মায়ের হাতে তুলে দেয়া হয় সনদ।

আয়ার সহপাঠী বন্ধুরা তাঁদের হারিয়ে যাওয়া বন্ধুর কথা স্মরণ করেন।

পড়ালেখা শেষ করে সলিসিটর হতে চেয়েছিল আয়া। কিন্তু অস্ত্রধারীদের গুলিতে চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে যায় তাঁর সেই স্বপ্ন।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :94 বার!

JS security