রাজনগরে পানিবন্দি ৪০ হাজার মানুষ উদ্ধার অভিযানে ফায়ার সার্ভিস,

মৌলভীবাজার জ়েলা প্রতিনিধি:-মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার কামারচাক ইউনিয়নে মনু নদীর বাঁধ ভেঙ্গে ৪০ হাজারের বেশি মানুষ পানিবন্দি রয়েছেন। পানিবন্দি মানুষকে উদ্ধার করতে শুক্রবার সকালের ইউপি চেয়ারম্যান নজমুল হক সেলিম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসককে অনুরোধ করলে মৌলভীবাজার ফায়ার সার্ভিসের একটি উদ্ধারকারী দল পাঠানো হয়। তবে পর্যাপ্ত স্পিড বোট ও নৌকা না থাকায় উদ্ধার অভিযানে নামতে পারছে না ফায়ার সার্ভিস। বিকাল ৩টার দিকে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ও সিলেট রেঞ্জের ডিআইজিসহ সরকারের উর্ধ্বতন কমর্কর্তারা এলাকা পরিদর্শন করেছেন।স্থানীয়সূত্রে জানা যায়, গত ১২ জুন দিবাগত রাতের মুষলধারে বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে মনু নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হতে থাকে। ভোলানগর ও হরিপাশা এলাকায় মনু নদীর বন্যা প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে গিয়ে পানি লোকালয়ে প্রবেশ করে। এতে ওই ইউনিয়নের ২০টি গ্রামের ৪০ হাজারের বেশি মানুষ পানিবন্দি হয়ে পরেন। ৩ দিন ধরে পানিবন্দি মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছেন না। বৃহস্পতিবার থেকে কামারচাক বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র ও তারাপাশা স্কুল এন্ড কলেজে বন্যার্তদের আশ্রয় নিতে আহ্বান জানালেও এখনো তারা বাড়ি ছেড়ে আসেন নি। অর্ধশতাধিক নৌকা পিকাআপে করে নেয়া হচ্ছে। পানি দ্রুত বাড়ছে।ইউপি চেয়ারম্যান নজমুল হক সেলিম বলেন, উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে নৌকা আনা হচ্ছে। স্পিড বোট ছাড়া কাজ এগুচ্ছে না। ফায়ার সার্ভিস এলেও নৌকা না থাকায় তারা বসে রয়েছে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :598 বার!

JS security