লন্ডনে মা কে বাঁচাতে গিয়ে জীবন দিলেন এক আইনের ছাত্র

ইষ্ট লন্ডনের লেইটনে চোরের হাত থেকে মা কে বাঁচাতে গিয়ে জীবন দিলেন ১৮ বছর বয়সী এক যুবক। মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটে গত বুধবার বিকাল ৫টা ২০মিনিটে ওয়ালথাম ফরেস্ট কাউন্সিলের লিব্রিজ রোড়ে।

জানাযায় একটি ডিজাইনার জ্যাকেট চুরি করতে আসলে বাঁধা হয়ে দাঁড়ান নিহত যুবকের মা। ক্ষিপ্ত হয়ে উক্ত চোর তার মাকে চুরিকাঘাত করতে থাকে। এ সময় মাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন হোসাইন চৌধুরী।
মাকে বাঁচাতে হোসাইন এগিয়ে এলে চোর তার ঘাড়ে ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এর কিছুক্ষন পর নিজ ঘরের সামনেই মায়ের হাতেই শেষ নি:শ্বাষ ত্যাগ করে আইনের ছাত্র হোসাইন চৌধুরী। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত মাকে অভয় দিয়ে যাচ্ছিল হোসাইন। স্থানীয়রা জানিয়েছে তাদের ফ্যামিলি অনলাইনে পোশাক বেচাকেনা করতেন।

ঘটনার পরপরই দ্রুত পুলিশ ও প্যারামেডিকেল টিম আসলেও ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় হোসাইন চৌধুরীর। আহত অবস্থায় তার মা ভাইকে হাসপাতালে নেয়া হয়।
পুলিশ বলছে তারা এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে তবে এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি।

নিহত হোসাইনের চাচা আর চৌধুরী ইভনিং স্ট্র্যার্ন্ডকে জানিয়েছে, ডাকাতের হাত থেকে মাকে রক্ষা করতে গিয়েই তার ভাতিজার মৃত্যু হয়েছে। সে সোয়াস ইউনিভার্সিটিতে আইনের ছাত্র ছিলো।
তিনি তাকে গ্রেট বয় হিসেবে উল্লেখ করেন। এদিকে হোসাইনের মায়ের হাতের বেশ কয়েক জায়গায় অস্ত্রোপচার করা হয়েছে।

হোসাইনের বোন আফিয়া আহমদ চৌধুরী টুইটারে লিখেছেন, দেখ ভাই, তোমার নাম এখন দুনিয়ার সব জায়গায় ছড়িয়েছে, তুমি সঠিক ছিলে এবং তুমি এখন ঐখানে স্থায়ী বাসিন্দা হয়েগেছ, ‘আমি তোমাকে ভালবাসি’
তোমার জন্য পুরো কমিউনিটি একত্রিত হয়েছে, আমরা আমাদের ছোট ভাইকে হারিয়েছি, এই ব্যথা কোনভাবেই ভুলার নয়।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :102 বার!

JS security