সিলেট নগরীতে আদম বেপারীসহ আটক ২০ জনকে জেল-জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক:-সিলেট নগরীতে লাইসেন্স বিহীন অবৈধ ট্রাভেলস এজেন্সিগুলোতে অভিযানে চালিয়েছে প্রশাসন। সোমবার (১৩ মে) সকালে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নেতৃত্বে মোট ৫টি টিম নগরীর বিভিন্ন এলাকায় অবস্থিত অবৈধ ট্রাভেলস এজেন্সিগুলোতে অভিযান পরিচালনা করে।অভিযানকালে অনুমোদনহীন অবৈধ ট্রাভেল এজেন্সির ২০ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে জেল ও জরিমানা করা হয়েছে। অ্যাসোসিয়েশন ট্রাভেল এজেন্ট বাংলাদেশ (আটাব) সিলেটের সভাপতি আব্দুল জব্বার জলিল এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, অভিযানে কম করে হলেও ১০০ জনকে ধরা যেতো। অভিযান শুরুর খবর পেয়ে সবাই দোকান বন্ধ করে পালিয়েছেন।জিন্দাবাজার এলাকায় পরিচালিত অভিযানে ওয়েস্ট ওয়ার্ল্ড শপিং সিটি থেকে ৩ জন আদমবেপারী আটক করা হয়। আটককৃতদের একমাসের কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেন প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। আটককৃতরা হচ্ছেন- ইউসিএস এ্যাডুকেশনের হীরা, রিচ রিল্যাশন গ্রুপের মাহবুব এবং জাকির এডুক্যাশনের কর্মচারী। জেলা প্রশাসনের আরেকটি টিম বন্দরবাজার এলাকার রংমহল টাওয়ার ও সুরমা মার্কেটে এবং জিন্দাবাজার এলাকার ওয়েস্ট ওয়ার্ল্ড শপিং সিটি, রাজা ম্যানশন এলাকার অবৈধ ট্রাভেলস এজেন্সিগুলোতে অভিযান চালিয়ে আরও ১৭জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও অর্থদণ্ড দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে সালিক রুমাইয়া ও মো. হেলাল চৌধুরী জানান, মানবপাচার বন্ধে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে লাইন্সেস-নিবন্ধনবিহীন ট্রাভেলসগুলোতে অভিযান চালানো হচ্ছে। যতদিন পর্যন্ত এগুলো পুরোপুরি বন্ধ না হবে ততদিন ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান চলবে।

প্রসঙ্গত, ৯ মে বৃহস্পতিবার দালালদের মাধ্যমে সাগর পথে ইতালি প্রবেশ করতে গিয়ে ট্রলারডুবিতে প্রাণ হারান সিলেটের বেশ কয়েকজন। এর মধ্যে ৭ জনের পরিচয় শনাক্ত করা গেছে। তাদেরকে ইতালি পাঠানোর জন্য ৮ লাখ টাকার চুক্তি করেছিলেন রাজা ম্যানশনের ইয়াহিয়া ওভারসিজ নামক এজেন্সির মালিক এনামুল হক। এ ঘটনার পরই অবৈধ ট্রাভেলসের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো হয়েছে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :103 বার!

error: Content is protected !!
JS security