আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবসে জিএসসির আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

 


গ্রেটার সিলেট ডেভেলাপমেন্ট এন্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ইন ইউকের কেন্দ্রীয় কমিটি ও সাউথ ইস্ট রিজিওনের যৌথ উদ্যোগে ২১শে ফ্রেব্রুয়ারী আন্তর্জাতিক মার্তৃভাষা দিবস উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল গত রোববার ২১শে ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হয় । সভার শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস।

দুই পর্বে অনুষ্ঠিত সভায় ১ম পর্বে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় চেয়ারপার্সন ব্যারিস্টার আতাউর রহমান ও ২য় পর্বে সভাপতিত্ব করেন সাউথ ইস্ট রিজিওনের চেয়ারপার্সন মোহাম্মদ ইছবাহ উদ্দিন । সভা সঞ্চালন করেন যথাক্রমে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক খসরু খান ও সাউথ ইস্ট রিজিওনের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করীম চৌধুরী।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন জিএসসির পেট্রন ডক্টর হাসনাত এম হোসাইন এমবিই, কে এম আবু তাহের চৌধুরী, কেন্দ্রীয় ট্রেজারার সালেহ আহমদ, সাবেক কেন্দ্রীয় চেয়ারপার্সন মনছব আলী জেপী, কেন্দ্রীয় সহসভাপতিদের মধ্যে-ব্যারিস্টার মাসুদ চৌধুরী, বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ আজিজ, এ এফ এম কামরুল হাসান চুনু ও এইচএম আশরাফ আহমদ, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ আব্দুল লতিফ জেপী l  

সাউথ রিজিওনের চেয়ারপার্সন আরজু মিয়া এমবিই, জিএসসির নর্থ ইস্ট রিজনের সেক্রেটারি হাবিবুর রহমান রানা, স্কটল্যান্ডের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও কমিউনিটি নেতা মোবারক আলী, জিএসসির সাউথ ইস্ট রিজিওনের সহসভাপতিদের মধ্যে কাউন্সিলার ফজলুর রহমান, মঞ্জুর রেজা চৌধুরী, তৌফিক আলী মিনার, খিদমা একাডেমির খতিব মাওলানা নাজিম উদ্দিন, ইস্ট মিডল্যান্ড রিজিওনের কমিউনিটি নেতা আব্দুস শহীদ, জিএসসির কেন্দ্রীয় জয়েন্ট সেক্রেটারি আহসানুজ্জামান আরিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আসকির বেগ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক কাইয়ুম খান ফয়সল ও জকিগঞ্জ ওয়েলফেয়ারের সভাপতি জুবায়ের লস্কর।

আরো আলোচনা করেন সাউথ ইস্ট রিজিওনের ট্রেজারার সূফী সুহেল আহমেদ, ইস্ট লন্ডন ব্রাঞ্চের চেয়ারপারসন এম. এ গফুর ও সেক্রেটারি আবদুল মালিক কুটি, জিএসসির সাউথ রিজিওনের জয়েন্ট সেক্রেটারি মহিব উদ্দিন চৌধুরী, জিএসসি সাউথ ইস্ট রিজিওয়নের জয়েন্ট ট্রেজারার মোহাম্মদ আবুল মিয়া, এনইসি মেম্বার আব্দুর রাজ্জাক, সাবেক কাউন্সিলার রুহেল আমিন, এসেক্স ব্রাঞ্চের সেক্রেটারি আবদুল হক আবু ও ট্রেজারার গোলাম মোস্তফা, কাজী আকমল তাজ, সালেহ আহমদ, তাজ উদ্দিন, নূর আহমদ প্রমুখ ।

সভায় বক্তারা বলেন, ২১ ফেব্রুয়ারি বাংলা ভাষার জন্য জীবন দিয়ে আমাদের অধিকার আদায়ের পথ দেখিয়েছেন বীর ভাষা শহীদগণ। ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি ভাষা আন্দোলনের স্মৃতিবিজড়িত একটি বিশেষ দিন হিসেবে আমাদের মনে স্থান করে নিয়েছে । পাকিস্তানি শাসকরাই শহীদদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে অন্যতম রাষ্ট্রভাষা হিসেবে বাংলার সাংবিধানিক স্বীকৃতি দিতে বাধ্য হয়। একুশের অনুপ্রেরণাতেই অব্যাহতভাবে পাকিস্তানি সাংস্কৃতিক আগ্রাসন প্রতিহত করার মাধ্যমে বাঙ্গালী ধাপে-ধাপে তার আত্মপরিচয়, অর্থাৎ বাঙ্গালি জাতীয়তাবাদকে খুঁজে পেয়েছিল। এই বাঙ্গালি জাতীয়তাবাদ-ই চূড়ান্তভাবনে স্বাধীন বাংলাদেশের রাজনৈতিক ভিত রচনা করেছিল। বিদেশীদের কাছে বাংলা ভাষা আর সংস্কৃতির মহিমাকে তুলে ধরার অব্যাহত চেষ্টাই পারে এর চর্চাকে উৎসাহিত করতে, এটা আমাদের সকলের নৈতিক দায়িত্ব।

সভা শেষে শহীদদের রুহের মাগফেরাত কামনা ও কোভিড ১৯ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারিদের আত্মার শান্তি কামনা ও তাদের পরিবার বর্গের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে মোনাজাত করেন মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস ।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :44 বার!

JS security