ঠাকুরগাঁওয়ে কোটি টাকার টেন্ডারে ১১ বছর ধরে চলছে একই ব্যক্তির আধিপত্য

মাহমুদ আহসান হাবিব ,ঠাকুরগাঁও :-  কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন বিএডিসির ঠাকুরগাঁও অফিসের গম,ধান ও ভূট্রা বীজ পরিবহনে টেন্ডারে ১৮ টি শিডিউল বিক্রি হলেও জমা পড়েছে মাত্র ৩ টি। অভিযোগ উঠেছে একজন ঠিকাদার কাজ বাগিয়ে নিতে অন্যান্য ঠিকাদারদের শিডিউল ফেলতে বাঁধা দেয়। বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএডিসি) শিবগঞ্জ কেন্দ্রের ধান, গম ও ভূট্রা বীজ পরিবহনে ১ কোটি টাকার ঠিকাদার নিয়োগের টেন্ডার আহবান করা হয়। মালামাল পরিবহন আহবানের বিপরীতে ১৮ টি দরপত্র বিক্রি হয়।

১লা সেপ্টেম্বর সকাল ৯টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত শিডিউল জমা দানের জন্য সময় বেঁধে দেওয়া হয়। কিন্তু নির্ধারিত সময়ে শিডিউল পড়েছে মাত্র ৩ টি। অভিযোগ উঠেছে, পূর্বের ঠিকাদার এবারও ওই কাজ পেতে মরিয়া হয়ে উঠে এবং একটি সন্ত্রাসী গ্রুপের পাহারার কারণে কোন ঠিকাদারই দরপত্র বাক্সে শিডিউল ফেলতে পারেনি। মাহাবুব আলম, মোস্তফা কামাল,রবিন্দ্র নাথসহ বেশ কয়েকজন ঠিকাদার অভিযোগ করে বলেন, প্রভাবশালী স্থানীয় একজন ঠিকাদার কাজ বাগিয়ে নিতে একটি সন্ত্রাসী বাহিনীকে হাতে করে পাহারার ব্যবস্থা করে। এ অবস্থায় ভয়ে দুপুর পর্যন্ত কোন ঠিকাদারের পক্ষে শিডিউল ফেলা যায়নি।

সিন্ডিকেট চক্রের ভয়ে তারা বাক্স পর্যন্ত যাওয়ার সাহস পাননি। তারা আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে যখন টেন্ডার ও দুর্নীতি বন্ধ করার জোর চেষ্টা চালাচ্ছেন তখন কতিপয় কর্মকর্তার যোগসাজসে ঠাকুরগাঁও জেলার ইউনিয়ন পরিষদ এলাকার প্রত্যন্ত গ্রামে শিবগঞ্জ বিএডিসিতে টেন্ডারবাজি এখনো বন্ধ হয়নি। গত ১১ বছর ধরে এভাবে কাজ বাগিয়ে নিচ্ছেন ওই ঠিকাদার। এ ব্যাপারে বিএডিসি শিবগঞ্জ কেন্দ্রের উপ-পরিচালক (বীজ) তাজুল ইসলাম বলেন, শিডিউল ফেলতে পারেনি এমন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। ১৮টি দরপত্র বিক্রি হলেও শেষ সময় পর্যন্ত শিডিউল জমা পড়েছে মাত্র ৩ টি। পুলিশ প্রশাসন উপস্থিত ছিল।

কেউ যদি শিডিউল ফেলতে না পারে এর দায় তিনি নেবেন না বলে জানান। এছাড়াও গত ১১ বছর ধরে দেশের অন্যান্য জেলার একই দপ্তরের পরিবহন দরপত্রে ঠাকুরগাঁও এর শিবগঞ্জ বিএডিসি (বীজ) দপ্তরের দরপত্রের দেওয়া দর ৩-৪ গুন অধিক দর দিয়ে এই ঠিকাদারকে ঠিকাদারী নিয়োগ দিয়ে আসছিল এই দপ্তর। এ বিষয়ে উপ-পরিচালক তাজুল ইসলামের নিকট জানতে চাওয়া হলে,তিনি এর প্রদান করেননি।

এবার দরপত্র ফেলতে গিয়ে বিএডিসি প্রশাসন ঠাকুরগাঁও ঠিকাদার ও স্থানীয় জনগনের রোষানলে পড়ে।উপায় খুজে না পেয়ে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের এই টেন্ডার ১লা সেপ্টেম্বররের গৃহীত দরপত্র বাতিল করে পূন: দরপত্র আহবান করেছেন।যার দরপত্র দাখিলের দিন ও তারিখ ২০ সেপ্টেম্বর।১৯ সেপ্টেম্বর শেষ দিন দরপত্র বিক্রয় করা হবে। এ বিষয়ে জানান, উপ-পরিচালক (বীজ) তাজুল ইসলাম।তিনি আরো জানান, পুলিশ সুপার অফিস সহ ৩ টি জায়গায় দরপত্র বাক্স রাখা হবে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :125 বার!

JS security