তাহিরপুরে ভেজাল সার ও কীটনাশক জব্দ, আটক ৩

তাহিরপুর প্রতিনিধিঃ-

সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে বিপুল পরিমান ভেজাল সার ও কীটনাশক বোতলসহ একটি ষ্টিলবডি নৌকা আটক করেছে তাহিরপুর থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার মধ্য রাতে সরকারের ভর্তুকি দেওয়া ২৭১ বস্তা সার ও কিট নাসক তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট বাজার থেকে কালো বাজারে অন্যত্র সড়িয়ে নেয়ার সময় ইঞ্জিন চালিত ষ্টিলবডি নৌকাসহ রক্তি নদী থেকে তাহিরপুর থানা পুলিশ এসব আটক করে।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে তাহিরপুর থানার এস আই মো. আবু বকর সিদ্দিক ও এসআই মো. নাজমুল হকের নেতেৃত্বে পুলিশের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার বালিজুরী ইউনিয়নের রক্তি নদীর নৌপথে অভিযান চালিয়ে কিশোরগঞ্জের ভৈরবগামী ইঞ্জিনচালিত একটি নৌকা সন্দেহ হলে আটক করে। পরে নৌকায় তল্লাশি চালিয়ে ২৭১ বস্তা বেজাল সার ও কিটনাশক বোকল জব্দ করে। এসময় নৌকায় থাকা মাঝিসহ ৩ জনকে পুলিশ আটক করে।

আটকৃতরা হলেন, ভৈরব উপজেলার লুন্দিয়া কলাপাড়া গ্রামের মৃত মন্তাজ মিয়ার ছেলে শওকত মিয়া (৫৫) ওরফে শওকত মাঝি ও তার ছেলে ইকবাল হোসেন (২২) এবং তাহিরপুর উপজলার বিন্দারবন্দ গ্রামের আ. গফুরের ছেলে রফিকুল ইসলাম (২৭)।

পুলিশ জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা জানিয়েছে, কিশোরগঞ্জের ভৈরববাজারে ডিএপি সার ও কীটনাশকের চালান পৌঁছে দিতে তাহিরপুরের বিসিআইসি নিয়োজিত ডিলার রাবেয়া এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী হাফিজুর রহমান নৌকাটি ভাড়া করেন। তারা ভাড়া নিয়ে সার ও কিটনাশক ভৈরব নিয়ে যাচ্ছিলেন।

তাহিরপুর উপজেলা সার বীজ মনিটরিং কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রায়হান কবির বলেন, নৌপথে কালো বাজারে পাচারকালে সরকারের ভর্তুকির সার ও ভেজাল কীটনাশক আটকের খবর পেয়ে আইনি ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তাহিরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ তরফতার জানান, এ ঘটনায় এস আই মো. আবু বকর সিদ্দিক বাদী হয়ে আটককৃত তিন জনসহ আরো তিন জনকে পলাতক আসামী করে তাহিরপুর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :87 বার!

JS security