নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন, ঘটনার ১ মাস পর আটক ১

গ্লোবাল ডেস্ক:- নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় ঘরে ঢুকে এক গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতনের এক মাস পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় রোববার আব্দুর রহিম (২৭) নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। ৩৫ বছর বয়সী ভুক্তভোগী নারীকে উদ্ধার করে নিরাপত্তা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে।

আটক আব্দুর রহিম বেগমগঞ্জ উপজেলার পূর্ব একলাশপুর গ্রামের হাড়িধন বাড়ির বাসিন্দা। এই ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

জানা গেছে, বেগমগঞ্জের একলাশপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডে এক নারী দাম্পত্য কলহের জেরে কয়েক মাস বাবার বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। এই সুযোগে স্থানীয় যুবক আব্দুর রহিমসহ কয়েকজন তাকে নানাভাবে উত্ত্যক্ত করে এবং অনৈতিক প্রস্তাব দেয়। এতে রাজি না হওয়ায় গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে তারা ঘরে ঢুকে ওই নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন চালায়।

রোববার ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিওতে দেখা যায়, বসতঘরে ঢুকে ওই নারীকে ৩-৪ জন যুবক বিবস্ত্র করে মারধর করছে। একজন ওই নারীর মুখে পা দিয়ে চেপে ধরে। বারবার আকুতি করার পরও নির্যাতন করা বন্ধ করেনি কেউ।

এক মিনিট ২৩ সেকেন্ডের ওই ভিডিও ফুটেজ দেখে অনেকেই অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

ওই যুবকদের ভয়ে ঘটনার পর থেকে তিনি বাড়ি ছেড়ে চলে যান বলে জানান কয়েকজন স্থানীয়।

ঘটনার সঙ্গে জড়িত দেলোয়ার হোসেন, বাদল ও কালামসহ অন্যদের খুঁজছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী নারীর বাবা বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িতরা প্রভাবশালী হওয়ায় ভয়ে তাদের বিরুদ্ধে মুখ খোলার সাহস করেননি তারা। তিনি এর সুষ্ঠু বিচার চান।

নোয়াখালীর পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন বলেন, ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে নির্যাতনের সঙ্গে জড়িত একজনকে আটক করেছে। অন্যদেরও আটক করার চেষ্টা চলছে।

নির্যাতিতা নারীকে অনেক খোঁজাখুঁজি করে উদ্ধার করা হয়েছে এবং এই ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :207 বার!

JS security