পুঠিয়ায় শ্যালিকাকে ধর্ষণকারী ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

গ্লোবাল ডেস্ক:- রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় শ্যালিকাকে ধর্ষণকারী এখলাস আলী র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার ভোররাতে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। বর্তমানে তার মরদেহ পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

সপ্তম শ্রেণি পড়ুয়া শ্যালিকা ইভাকে ধর্ষণ ও আত্মহত্যা প্ররোচনা মামলার আসামি ছিলেন এখলাস। পুঠিয়ার গন্ডগোহালী গ্রামের কাশেমের ছেলে তিনি। এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে ইভা তার বড় ভগ্নিপতি এখলাস আলীর বাড়িতে বেড়াতে যায়। এই সুযোগে এখলাস আলী জুসের মধ্যে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন অবস্থায় তার শ্যালিকাকে ধর্ষণ করে। পরে ৯ এপ্রিল দুপুরে পুঠিয়ার রামজীবনপুর গ্রামের নিজ বাড়ি ফিরে লোকলজ্জায় ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে ইভা আত্মহত্যা করে।

এ ঘটনায় এখলাস আলী ও তার বাবা-মাকে আসামি করে পুঠিয়া থানায় মামলা করা হয়। ইভা রাজশাহীর পুঠিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী ছিল। ধর্ষণের শিকার ইভা খাতুনের আত্মহত্যার দুই মাস পেরিয়ে গেলেও আসামিদের গ্রেপ্তার করতে না পারায় এ ঘটনায় বিচারের দাবি নিয়ে অবশেষে রাস্তায় নামে তার হতভাগা বাবা।

গত ১০ জুন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে পুঠিয়া উপজেলা পরিষদের সামনে ইভা খাতুনের বাবা ভ্যানচালক সেলিম হোসেন বিচারের আশায় মেয়ের ছবি সম্বলিত একটি ব্যানার নিয়ে একাই দাঁড়িয়ে থেকে প্রতিবাদ জানান।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :80 বার!

JS security