বাংলাদেশ-পাকিস্তানকে লাল তালিকায় রাখায় উদ্বেগ জানিয়ে বরিসকে ৩৮ বৃটিশ এমপির চিঠি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনার সংক্রমন বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশ ও পাকিস্থানকে সম্প্রতি লাল তালিকার দেশ হিসেবে চিহিৃত করে ব্রিটেন। যা ৯ এপ্রিল শুক্রবার সকাল থেকে কার্যকর হবে। এর ফলে লাল তালিকার দেশ সমূহ থেকে কেউ ব্রিটেনে আসলে, তাকে ১০ দিন নিজ খরছে হোটেল কোয়ারিন্টিনে থাকতে হবে।

এই প্রেক্ষাপটে যুক্তরাজ্যের প্রায় ৩৮ জন আইন প্রণেতা বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে লেখা এক চিঠিতে পাকিস্তান ও বাংলাদেশকে লাল তালিকায় বা ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় রাখার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন, যুক্তরাজ্যে বসবাসরত অনেক বাসিন্দার ওপর এটি বড় প্রভাব ফেলবে।

পাকিস্তান টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়- চিঠিতে সাংসদরা যুক্তরাজ্যে ১.১ মিলিয়ন বৃটিশ পাকিস্তানির পাশাপাশি বিপুল সংখ্যক বৃটিশ বাংলাদেশি রয়েছেন বলে প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

চিঠিতে বলা হয়েছে, অনেক যুক্তরাজ্যের নাগরিক সরকারের নির্দেশিকা অনুসারে লাল তালিকাভুক্ত দেশগুলোতে ভ্রমণ করেছেন এবং প্রচুর লোক হয়তো প্রবীণ আত্মীয়স্বজনসহ পরিবারের সাথে দেখা করতে গিয়েছেন, যাদের তারা এক বছরেরও বেশি সময় ধরে দেখেননি।

তারা ইতিমধ্যে রিটার্ন ফ্লাইটের জন্য অর্থ প্রদান করেছেন । তবে এখন এমন এক অবস্থানে রয়েছেন যেখানে নিষেধাজ্ঞার সীমাবদ্ধতা কার্যকর হওয়ার আগে ফেরত আসতে তাদের নতুন ফ্লাইটের জন্য পুনরায় অর্থ দিতে হবে।’

চিঠিটির উদ্যোক্তাদের মধ্যে পাকিস্তান বিষয়ক সর্বদলীয় সংসদীয় দলের সভাপতি ইয়াসমিন কুরেশি, সহ-সভাপতি রেহমান চিশতি, বাংলাদেশ বিষয়ক সর্বদলীয় সংসদীয় দলের সভাপতি রুশনারা আলী রয়েছেন।

 

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :72 বার!

JS security