বিশ্বনাথে তিন বন্ধুর সাথে এক প্রেমিকার প্রেম

স্টাফ রিপোর্ট: প্রেমের মরা জলে ডুবে না….তুমি সুজন দেইখা কইরো পিরিত মরলে যেনো ভুলে না দরদি…। শিল্পীর ধরদ ভরা গানের সাথে, ফাতেমা বেগম (২০) নামের এক প্রেমিকার সাথে তিনবন্ধুর প্রেমের সন্ধান মিলেছে। ইতি পূর্বে ফাতেমা ২০ দিনের মধ্যে ৩ প্রেমিকের সাথে বারবার পালানো এবং দুইবার দুই প্রেমিককেও বিয়ে করেছেন ফাতেমা! ফতেমা সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার টেংরা গ্রামের দিনমজুর শানুর আলীর মেয়ে।
সরেজমিন ফাতেমার নিজ গ্রাম টেংরা গ্রামে গেলে স্থানীয়রা শানুর আলীকে তাদের টেংরা গ্রামের বাসিন্দা এবং দুই মেয়ে ও এক ছেলে সন্তানের জনক। তার স্ত্রী প্রবাসে থাকায় তার মেয়ে ফাতেমার দিকে নজর লাগে একই গ্রাম টেংরা গ্রামের মৃত আব্দুল করিমের পুত্র বখাটে আব্দুল্লাহ। বখাটে আব্দুল্লাহ ফাতেমার সাথে প্রেমের কথা সে তার তিন বন্ধুকে জানালে তিন বন্ধুই এক সময় ফাতেমার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে। গত ৫ রামাদ্বান ফাতেমা নিজ বাড়ি থেকে তার দ্বিতীয় প্রেমিক দক্ষিণ সুরমা উপজেলার লালাবাজার ইউনিয়নের ফুলদি গ্রামের জমসিদ আলীর পুত্র রাজেল আহমদের সাথে পালিয়ে যায়।
রাজেল জানায়, সে ফাতেমাকে কোর্ট ম্যারিজের মাধ্যমে বিয়ে করেন এবং ১৮ দিন তার সাথে সংসার করেন। ১৮ দিন পর অর্থাৎ (২৫ রমজান) হঠাৎ করে ফাতেমা রাজেলের ঘর থেকে নিখোঁজ হয়। নিখোঁজের ঘটনায় রাজেল দক্ষিন সুরমা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন।
নিখোঁজের দু’দিন পর সিলেট-ঢাকা মহা সড়কের সাতমাইল ফাঁসির গাছ নামক স্থান থেকে একই উপজেলার নাজরগাঁও গ্রামের অটোরিক্সা ইঞ্জিনিয়ার হাবিবুর রহমানের কাছে ফাতেমাকে উদ্ধার করে রাজেল ও তার সঙ্গীরা। পরে ফাতেমাকে নিয়ে ফুলদি গ্রামের ইউপি সদস্যাসহ স্থানীয়ভাবে ফাতেমাকে জিজ্ঞাসা করা হলে সে টেংরা গ্রামের আব্দুল্লাহকে বিয়ে করবে বলে জানায়। স্থানীরা টেংরা গ্রামের ইউপি সদস্যা আমিনা বেগম ও তাহির আলী, আলী হোসেন ও আব্দুল্লারমাসহ তাদের জিম্মায় ফাতেমাকে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। ফাতেমার এমন কান্ডে এলাকায় দারুণ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।
এদিকে ফাতেমার ‘মা’ ফাতেমাকে তার সন্তান হিসেবে আর মেনে নিতে চাননা। কারন ফাতেমাকে বিদেশে নেয়ার জন্য তিনি সাড়ে ৩ লক্ষ খরচ করে সব কিছু টিকটাক করেছিলে। কিন্তু ফাতেমাকে যারা ফুসলিয়ে একের পর এক নাটক করেছেন, তারাই ফাতেমার দায়ভার বহন করতে হবে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :163 বার!

JS security