বিশ্বনাথে বিয়ে করতে এসে কনে ছাড়াই ফিরে গেলেন বর-Global-Sylhet

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি:- সিলেটের বিশ্বনাথে বরের বয়স কম হওয়ায় বাল্য বিয়ে ভঙ্গ করা হয়েছে। ফলে বিয়ে করতে এসে কমিউনিটি সেন্টার থেকে কনে ছাড়াই বাড়ি ফিরে যেতে হলো বর’কে। শুক্রবার উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের নকিখালীস্থ শাহ উসমান কমিউনিটি সেন্টারে এঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, শুক্রবার (১৯অক্টোবর) দুপুরে শাহ উসমান কমিউনিটি সেন্টারে বিশ্বনাথ উপজেলার উজাইজুরী গ্রামের মৃত আব্দুল মুতলিবের মেয়ে আমিনা বেগম (১৯) এর সঙ্গে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার নতুন পারকুল গ্রামের ছমরু মিয়ার পুত্র কাওছার আহমদ (১৯) এর বিয়ের অনুষ্ঠান আয়োজন করা। বর ও কনের পরিবারের পক্ষ হতে নিজ নিজ আত্মীয়-স্বজনদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। কনের পরিবার দরিদ্র হলেও তারা তাদের সাধ্যানুযায়ী কমিউনিটি সেন্টারে আমন্ত্রিত অতিথিদের জন্য তৈরী করেন খাবার। শুক্রবার বেলা ২টায় বর যাত্রীর বহর নিয়ে সেন্টারে উপস্থিত হন বর। বিয়ে পড়াতে কাজী উপস্থিত হন কাজী। কিন্ত কনের বিয়ের উপযুক্ত বয়স হলেও বরের বর্তমান বয়স ১৯ বছর। সরকারের আইন অনুযায়ী বরের বয়স কমপক্ষে ২১বছর হতে হবে। তাই এই বাল্য বিয়ে পড়াতে অপারগতা প্রকাশ করেন কাজী। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে রামপাশা ইউপি চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলমগীর, বিশ্বনাথ থানার এস.আই স্বাধীন চন্দ্র তালুকদার, এ.এস.আই জামাল খান, স্থানীয় ইউপি সদস্য ইছাক আহমদ ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য মিনা বেগম উপস্থিত হন কমিউনিটি সেন্টারে। এসময় তারা বর ও কনের জন্মনিবন্ধনের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পর্যালোচনা করে বিয়ে ভঙ্গের নির্দেশ প্রদান করেন। এতে বর ও করেন অভিভাবকরা সম্মতি জানান এবং বরের বয়স ২১ বৎসর না হওয়া পর্যন্ত এই বিয়ে না দেওয়ার লিখিত অঙ্গিকারনামা প্রদান করেন। একপর্যায়ে খাওয়া-দাওয়া না করে কনে ছাড়াই বরযাত্রী সহ বাড়ির উদ্দেশ্যে যাত্র করেন বর।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :1858 বার!

error: Content is protected !!
JS security