বিশ্বনাথে র‍্যাবের ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ২

স্টাফ রিপোর্টার :: সিলেটের গোলাপগঞ্জ ও বিশ্বনাথে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুইজন নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত গভীর রাতে এসব বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।

বিশ্বনাথ প্রতিনিধি জানান, বিশ্বনাথে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে এক অজ্ঞাতনামা ডাকাত নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছেন থানা পুলিশের এসআই মিজানুর রহমানসহ তিন পুলিশ সদস্য। শুক্রবার দিবাগত রাত (২২ ফেব্রুয়ারি) সাড়ে ৩টায় উপজেলার বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর বাইপাস সড়কের সুড়িরখাল নামকস্থানে এঘটনা ঘটে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে ৩টায় ১০/১২ জনের একটি ডাকাতদল বিশ্বনাথ-জগন্নাথপুর বাইপাস সড়কে গাছ ফেলে ডাকাতির প্রস্ততি চলাকালে একজন মোটরসাইকেল আরোহী ব্যক্তি বিষয়টি টহলরত পুলিশকে অবহিত করেন। খবর পেয়ে ডাকাত দলকে প্রতিহত করতে তাৎক্ষণিকভাবে থানার ওসি সহ একদল পুলিশ এগিয়ে গেলে ডাকাতরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। এসময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে।
এসময় একজন অজ্ঞাতনামা ডাকাত গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে মারা যায় এবং আহত হন থানা পুলিশের এসআই মিজানুর রহমান, কনস্টেবল চন্দন গৌর ও রাসেল দাস। একপর্যায়ে ডাকাতদলের অন্যান্য সদস্যরা পালিয়ে যায়। এসময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান উদ্ধার করে পুলিশ। আহত পুলিশ সদস‌্যদেরকে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
খবর পেয়ে পুলিশের ওসমানীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা বলেন, নিহত ডাকাতের পরিচয় সনাক্তের চেষ্টা চলছে।

এদিকে সিলেটের গোলাপগঞ্জের কদুপুর এলাকায় র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একাধিক মামলার আসামি আলী হোসেন নিহত হয়েছেন। এ সময় পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়। নিহত আলী হোসেন একজন শীর্ষ সন্ত্রাসী বলে জানিয়েছে র‍্যাব। এ সময় একজন র‍্যাব সদস্য গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে এ ঘটনা ঘটে।

র‍্যাব-৯ এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, একাধিক মামলার আসামি ও শীর্ষ সন্ত্রাসী আলী হোসেনকে গ্রেফতার করতে অভিযান চালালে সে তার দলবল নিয়ে গুলি ছোড়ে। এ সময় র‍্যাবও পাল্টা গুলি চালালে আলী হোসেন নিহত হন। পরে তার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :205 বার!

JS security