মাস্ক ও সাবান বিতরণকালে আ’লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ, শিশু টেঁটাবিদ্ধসহ আহত১০

গ্লোবাল ডেস্কঃ-  নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।স্থানীয় চেয়ারম্যানের পছন্দের লোক দিয়ে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসাধারণের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক ও সাবান বিতরণকে কেন্দ্র করে এমন সংঘর্ষ হয়েছে বলে যানা যায়।

সোমবার দুপুরে উপজেলার মেঘনাবেষ্টিত কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহত শেখ ফরিদ, আলতাফ, জুলি ও নাদিরাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে নাদিরা নামে এক শিশুর মাথায় টেঁটাবিদ্ধ হয়েছে এবং তার বোন জুলির মাথা ইটের আঘাতে থেঁতলে গেছে। তারা ওই এলাকার জোহর আলীর মেয়ে।

পুলিশ জানায়, গত শুক্র ও শনিবার কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম স্বপন রাধানগরসহ বিভিন্ন এলাকায় মাস্ক ও সাবান বিতরণ করেন। রাধানগর গ্রামে এলাকায় লোকজনের মাঝে মাস্ক ও সাবানসহ বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ করার দায়িত্ব দেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা তাজী মাতুব্বর গ্রুপের শাহা নামে এক যুবক ও তার সহযোগীদের।

এনিয়ে ইউপি সদস্য ইব্রাহিম ক্ষুব্ধ হন। সোমবার সকালে তাজী মাতুব্বর ও ইব্রাহীমের লোকজনের মধ্যে এ নিয়ে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে দুপুরে উভয় পক্ষের লোকজন দেশিয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

এতে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে প্রতিপক্ষের ছোঁড়া টেঁটার আঘাতে নাদিরা নামে এক শিশু বিদ্ধ এবং তার বোন জুলির মাথা ইটের আঘাতে থেঁতলে গেছে।

ইউপি চেয়ারম্যান স্বপন বলেন, মাস্ক ও সাবান বিতরণ করা হয়েছে তিনদিন আগে। বিতরণের ঘটনায় কোনো সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। ১০ বছর ধরেই তাজি মাতাব্বর ও ৪নং ওয়ার্ড সদস্য ইব্রাহিমের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছে।

ইতোপূর্বে তাদের মধ্যে বিভিন্ন ঘটনায় বেশ কিছু মামলাও রয়েছে। করোনা প্রতিরোধে সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণের ঘটনায় মারামারি হয়েছে এটা কেউ বলে থাকলে সেটি মিথ্যা তথ্য দিয়েছে।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :338 বার!

JS security