সুলতান মনসুরের ১০ বছরের আক্ষেপ- Global-Sylhet

সিলেট প্রতিনিধিঃ-  সিলেটে নিজেদের প্রথম জনসভায় দিয়েই রাজনীতিতে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে এখন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। বুধবার সিলেটে অনুষ্ঠিত জনসভায় বিপুল সংখ্যক মানুষের উপস্থিতি লক্ষ্য করা হয়েছে। ফ্রন্টের নেতাকর্মীদের দাবি সরকারের বাধা না থাকলে আরোও মানুষ উপস্থিত হতো জনসভায়।জনসভায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা এবং এ জোটের সিলেট সমাবেশের সমন্বয়ক সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদের দেয়া বক্তব্যে তিনি ১০ বছরের আক্ষেপ তুলে ধরেছেন।তিনি তার বক্তব্যে বললেন- আজ ১০ বছর পর দশ বছর পর, ৩ হাজার ৬৫০ দিন পর, ৮৫ হাজার ৬০০ ঘন্টা আজকে আমি সকল বাধা পেরিয়ে সিলেটের মাটিতে কোন জনসভায় বক্তব্য রাখছি।  ২০০৮ সালের পূর্ব পর্যন্ত আমার দীর্ঘ রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে এমন দিন নেই যে বঙ্গবন্ধুর পক্ষে কথা আমি বলিনি। আমার সেই রাজনৈতিক দিন কেড়ে নেয়ার চেষ্টা করা হয়েছে। কারা কেড়ে নিয়েছে সেটি আপনারা সবাই জানেন।সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ও বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য আরিফুল হক চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিশাল এই জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।পরিচালনা করেন জেলা বিএনপি নেতা আলী আহমদ ও মহানগর বিএনপি নেতা আজমল বখত সাদেক।

সুলতান মনসুর কাউকেই ছেড়ে যাননি…সিলেটে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের জনসভায় নিজের বক্তব্যে কাউকেই ছেড়ে যাননি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা এবং এ জোটের সিলেট সমাবেশের সমন্বয়ক সুলতান মোহাম্মদ মনসুর আহমদ।তিনি তার বক্তব্যে একে একে সিলেটের সকল নেতাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। স্বাধীনতাপূর্ব ও স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশের সাথে সংশ্লিষ্ট সবক’টি গুরুত্বপূর্ণ আন্দোলনে সিলেটের মানুষের ভূমিকা অপরিসীম উল্লেখ করেন তিনি।তিনি তার বক্তব্যে স্মরণ করেন, মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক এম এ জি আতাউল গণি ওসমানীকে। স্মরণ করেন জাতীয় সংসদের সাবেক স্পিকার হুমায়ূন রশীদ চৌধুরীকে। জেনারেল রব, মাহবুব আলী খান, সাবেক মন্ত্রী দেওয়ান ফরিদ গাজী, ড. এ এম এস কিবরিয়া ও সুরঞ্জিত সেনগুপ্তকে।  সদ্য প্রয়াত সিলেটের কৃতিসন্তান খেলাফত মজলিসের আমীর প্রিন্সিপাল হাবিবুর রহমানকেও স্মরণ করেছেন তিনি। তার রুহের মাগফিরাত কামনা করেছেন।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :142 বার!

error: Content is protected !!
JS security