১৬ মার্চ চাঞ্চল্যকর তুহিন হত্যা মামলার রায়

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:-

সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে নৃশংস কায়দায় পাঁচ বছরের শিশু তুহিন মিয়াকে হত্যার ঘটনায় করা মামলার রায় ঘোষণা করা হবে আগামী ১৬ মার্চ।

বুধবার সুনামগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলাটির যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষে রায় ঘোষণার এই দিন ধার্য করেন বিচারক। অন্যদিকে এই মামলার এক শিশু আসামির বিচার চলছে শিশু আদালতে। এই আদালতের রায় ঘোষণা করার কথা রয়েছে ১০ মার্চ।

তুহিন হত্যায় জড়িত অভিযোগে তার বাবা-চাচাসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে গত ৩০ ডিসেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। এরপর আদালতে অভিযোগ গঠন হয় ৭ জানুয়ারি। এই মামলায় ২৬ জন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দেন। এক আসামি শিশু হওয়ায় তার বিচার চলছে শিশু আদালতে। অন্যদের বিচার হচ্ছে জেলা দায়রা জজ আদালতে।

মামলায় আসামিপক্ষের আইনজীবী বজলুল মজিদ চৌধুরী খসরু গণমাধ্যমকে জানান, জেলা ও দায়রা জজ আদালতে ২৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য শেষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়। পরে মামলার রায়ের জন্য ১৬ মার্চ তারিখ ধার্য করেন বিচারক।

তিনি আরো জানান, তুহিন হত্যা মামলায় শিশু আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়েছে গত মঙ্গলবার। এই আদালতে মামলায় রায় ঘোষণার তারিখ ধার্য হয়েছে ১০ মার্চ।

গত বছরের ১৪ অক্টোবর সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার কেজাউরা গ্রামে নৃশংসভাবে হত্যার শিকার হয় শিশু তুহিন মিয়া। পরদিন সকালে বাড়ির পাশের একটি গাছের ডালে ঝুলন্ত অবস্থায় তুহিনের রক্তাক্ত লাশ পাওয়া যায়। তার গলা, দুই কান ও গোনাঙ্গ কাটা ছিল। পেটে বিদ্ধ ছিল দুটি বড় ছুরি। এ ঘটনায় তুহিনের মা মনিরা বেগম বাদী হয়ে পরদিন অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকে আসামি করে দিরাই থানায় মামলা করেন। এ মামলায় পুলিশ তুহিনের বাবা আবদুল বাছির (৪০), চাচা নাসির উদ্দিন (৩৫), আবদুল মছব্বির (৪৫) ও জমসেদ আলী (৬০) এবং কিশোর এক চাচাতো ভাইকে গ্রেপ্তার করে।

সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) শামসুন্নাহার বেগম শাহানাও জজ আদালতে তুহিন হত্যা মামলার রায় ঘোষণার তারিখের বিষয়টি জানিয়েছেন।

....সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুন

মন্তব্য

সংবাদটি পড়া হয়েছে :267 বার!

JS security