অর্থনীতি

দিরাইয়ে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

দিরাইয়ে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি

  সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯ টার দিকে উপজেলার রফিনগর ইউনিয়নের বাংলাবাজারে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটে। এতে ৮টি দোকান ঘর পুড়ে আনুমানিক ২ কোটি টাকার মালামাল ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান বাজারের ব্যবসায়ীরা। ব্যবসায়ীরা আরও জানান শনিবার রাত সাড়ে ৯ টার দিকে বাজার মসজিদ সংলগ্ন মার্কেটে আগুন দেখতে পাই, আমরা ব্যবসায়ীরা আগুন নেভানোর চেষ্টা করি কিন্তু হঠাৎ করে আশপাশের দোকানগুলোতে আগুন ছড়িয়ে পড়ে, আগুনের লেলিহান শিখা দেখে পাশ্ববর্তী বিভিন্ন গ্রাম থেকে মানুষ বাজারে এসে প্রানপণ চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন, তবে শেষ রক্ষা হয়নি এর মধ্যেই বড় বড় ৮ টি দোকান ঘরসহ মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। রফিনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রেজুয়ান খাঁন জানান, দিরাই উপজেলার সবচেয়ে বড় বাজার হচ্ছে বাংলাবাজার। বাজারে বিভিন্ন এলাকার ব্যবসায়ীরা এসে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়
কর্মী সংকটের জেরে খাদ্য সংকটের আশঙ্কা ব্রিটেনে

কর্মী সংকটের জেরে খাদ্য সংকটের আশঙ্কা ব্রিটেনে

ব্রিটেনের সুপারমার্কেট, পাইকারি বিক্রেতা ও মালামাল বহনকারী হোলিয়াররা স্থায়ী খাদ্য ও জ্বালানির সরবরাহ নিশ্চিত করতে বৃহস্পতিবার থেকেই জোর প্রচেষ্টা শুরু করেছে। একটি সরকারি স্বাস্থ্যসেবা অ্যাপ থেকে করোনা আক্রান্তের সংস্পর্শে আসা কয়েক লাখ শ্রমিককে আইসোলেট করতে বলার পরেই এই অবস্থা তৈরি হয় সেখানে। ব্রিটিশ খবরের কাগজে সুপারমার্কেটের প্রথম শেলফ ফাঁকা থাকা ছবি প্রকাশিত হয়। তবে রয়টার্সের সাংবাদিকরা জানিয়েছেন, বোতলজাত পানি, কোমল পানীয় এবং কিছু সালাদ এবং মাংসজাতীয় পণ্যের অভাব থাকলেও লন্ডনের দোকানগুলিতে খাবার আইটেমগুলি বেশ সহজলভ্য ছিলো।  সেখানকার বিজনেস সেক্রেটারি ওয়াসি ওয়ারটেং বলেন, আমরা পরিস্থিতি নিয়ে খুবই সতর্ক। আমরা পরিস্থিতি পযবেক্ষণ করছি। তবে তিনি মার্কেটের খালি তাকগুলোর ধারণা এখনও বুঝতে পারেননি । ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের দাবি তিনি ইংল্যান্ডের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড আব
ব্রিটেনে ছেলের গেমের টাকা মেটাতে গাড়ি বিক্রি করলেন বাবা

ব্রিটেনে ছেলের গেমের টাকা মেটাতে গাড়ি বিক্রি করলেন বাবা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: আইফোনে একের পর এক অ্যাপ ডাউনলোড করেছিল ছেলে। আর তার জন্য এক হাজার ৮০০ ডলারের বিল পরিশোধ করতে হলো বাবাকে। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ দাঁড়ায় এক লাখ ৫২ হাজার ৫৬৬। এ ঘটনা ঘটেছে ব্রিটেনের উত্তর ওয়েলসে। ৭ বছরের আশাজ তার বাবা মুহাম্মাদ মুতাজার আইফোনে ‘রাইজ অব ডার্ক’ গেমটি খেলছিল। প্রায় ঘণ্টাখানেক খেলার পর গেমটিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য অ্যাপ কিনতে বলা হয়। আশাজ একের পর এক অ্যাপ কিনতে শুরু করে। এক একটি অ্যাপের দাম ছিল ২ দশমিক ৭০ ডলার থেকে শুরু করে ১৩৮ ডলার পর্যন্ত। এ রকম বেশ কয়েকটি অ্যাপ কিনে ফেলেছিল আশাজ। তার বাবার যখন বিষয়টি চোখে পড়ে ততক্ষণে সেই বিল গিয়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৮০০ ডলারে। কিভাবে এতো টাকা পরিশোধ করবেন! ভেবেই তার হাড় হিম হয়ে যাচ্ছিল। শেষমেশ নিজের গাড়ি বিক্রি করে সেই বিল মেটান মুতাজা। প্রথমে ভেবেছিলেন কোনওভাবে তাকে প্রতারিত করা হয়েছে। কিন্তু পরে তিনি
রান্নাঘরের দেয়ালে ঝুলছে সাড়ে ৫ কোটি টাকার ‘মুদ্রা’

রান্নাঘরের দেয়ালে ঝুলছে সাড়ে ৫ কোটি টাকার ‘মুদ্রা’

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মহামারিতে লকডাউনের কারণে সবাইকে যে সময় কাটাতে দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে তা নয়। অনেক মানুষ এই সময়ে নিজেদের কল্পনা ও সৃজনশীলতাকে বাস্তবে রূপ দিতে কাজে লাগিয়েছেন। যেমনটি করেছেন উত্তর-পশ্চিম ইংল্যান্ডের এক নারী। তিনি নিজের সময়টুকু কাজে লাগিয়েছেন মুদ্রা দিয়ে রান্নাঘর সাজাতে। বিলি জো ওয়েলসবি নামের এই নারী কয়েক হাজার মুদ্রা দিয়ে রান্নাঘরের দেয়াল সাজিয়েছেন। এখন সেখানে সামান্য আলো প্রবেশ করলেই তা ঝিকমিক ও চকচক করে ওঠে। ফেসবুকে নিজের রান্নাঘরের কয়েকটি ছবি প্রকাশ করার পর প্রশংসায় ভাসছেন তিনি। এক সাক্ষাৎকারে বিলি জানান, এটি আমাদের সব চেয়ে আনন্দের জায়গা। প্রায় ১০ ঘণ্টা সময় লেগেছে পুরো কাজটি সম্পন্ন করতে। ভাবতেই ভালো লাগছে পুরোটাই আমার নিজ হাতে করা। তিনি জানান, সাড়ে সাত হাজার মুদ্রা লেগেছে সাজাতে। প্রতিটি মুদ্রার মূল্য ৭৫ ইউরোর সমান। অর্থাৎ বাংলাদেশি টাকায় মোট ৫ কোটি ৭
দলবেঁধে বিশ্ব চালানোর দিন শেষ: চীনের হুশিয়ারি

দলবেঁধে বিশ্ব চালানোর দিন শেষ: চীনের হুশিয়ারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দলবেঁধে বিশ্ব চালানোর দিন শেষ। কয়েকটি দেশের ‘ছোট’ একটি গ্রুপ বিশ্বের ভাগ্য নির্ধারণ করবে- সেই দিন এখন আর নেই। রোববার জি-৭ নেতাদের হুশিয়ারি দিয়ে এ মন্তব্য করেছে চীন। ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত ৩ দিনের জি-সেভেন সম্মেলনে শনিবার চীন বিরোধী ঐক্যের প্রতিক্রিয়ায় পরদিন লন্ডন দূতাবাস থেকেই এ বিবৃতি দিয়েছে চীন। খবর বিবিসির। জি সেভেন সম্মেলনের নাম উল্লেখ না করেই দূতাবাসের এক মুখপাত্র বলেন, ‘একটা সময় ছিল যখন আন্তর্জাতিক যে কোনও সিদ্ধান্ত বিশ্বের গুটিকয়েক দেশ ছোটখাট দল তৈরি করে নিয়ে ফেলত। সে দিন অনেক আগেই চলে গেছে। আমরা বিশ্বাস করি- ছোট বা বড়, শক্তিশালী বা দুর্বল, ধনী কিংবা গরীব বলে আলাদা কিছু নেই। বিশ্বে সবাই সমান। সব দেশকেই সমানভাবে গুরুত্ব দিতে হবে।’ বেইজিংয়ের ট্রিলিয়ন ডলারের প্রকল্প বিআরআই’কে (বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনিশিয়েটিভ) দুর্বল করতে শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের
চীনকে ঠেকাতে সাত দেশ এক

চীনকে ঠেকাতে সাত দেশ এক

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক: এক চীনকে ঠেকাতে এবার একাট্টা হলো সাত দেশ। বেইজিংয়ের ট্রিলিয়ন ডলারের প্রকল্প বিআরআই’র (বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনিশিয়েটিভ) পালটা হিসাবে বিথ্রিডব্লিউ (বিল্ড ব্যাক বেটার ওয়ার্ল্ড) প্রকল্প আনছে সাত দেশের সংগঠন জি-৭। যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে এই পরিকল্পনার আওতায় রাস্তাঘাট নির্মাণ ও অন্যান্য অবকাঠামো উন্নয়ন এগিয়ে নিতে নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোকে তহবিল দেওয়া হবে। ব্রিটেনের পর্যটন শহর কর্নওয়ালের কারবিস বে’তে চলমান জি-৭ সম্মেলন থেকে শনিবার এ বিষয়ে বৈশ্বিক পরিকল্পনা ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, করোনার মহামারির মতো ভবিষ্যৎ কোনো মহামারি মোকাবিলায় একটি চুক্তিও স্বাক্ষর করেছেন নেতারা। নতুন এই চুক্তির নাম দেওয়া হয়েছে ‘কারবিস বে ডিক্লারেশন’। খবর এএফপির। বৃহত্তর ঐক্যের প্রতিশ্রুতি নিয়ে ব্রিটেনের দক্ষিণ-পশ্চিমের শহর কর্নওয়ালের কারবিস বে’তে শুক্রবার শুরু হয় তি
মহামারি রোধে কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করবে জি-৭ নেতারা

মহামারি রোধে কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করবে জি-৭ নেতারা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্ব ভুগছে করোনাভাইরাসের মহামারিতে। ভবিষ্যতে এই ধরনের সংকট মোকাবিলায় কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করবেন বিশ্বের ধনী দেশগুলোর জোট জি-৭-এর নেতারা। আজ শনিবার (১২ জুন) এ বিষয়ে নেতাদের একটি যৌথ ঘোষণা আসার কথা রয়েছে। বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, মহামারি মোকাবিলায় এই ধনী দেশগুলো তাদের সব ধরনের সম্পদের ব্যবহার করবে। এমন ঘোষণাও আসতে পারে আজ। এ ছাড়া ঘোষিত কর্মপরিকল্পনার মধ্যে থাকবে, এমন মহামারি পৃথিবীকে যাতে আর না ভোগায়, সে জন্য টিকা তৈরি ও টিকার লাইসেন্স দেওয়া, রোগ শনাক্ত ও এর চিকিৎসাপদ্ধতি বের করতে সর্বনিম্ন সময় নেওয়া (১০০ দিনের মধ্যে)। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (ডব্লিউএইচও) আরও শক্তিশালী করা এবং এটি পুনর্গঠন করা। জিনোম সিকোয়েন্স এবং বৈশ্বিক নজরদারির জন্য একটি নির্দিষ্ট নেটওয়ার্ক তৈরি করা। যুক্তরাজ্যের দক্ষিণ-পশ্চিম ইংল্যান্ডের কর্নওয়ালের কারবিস বেতে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্

লন্ডনে বাংলাদেশি রেঁস্তোরাগুলোতে ধস

  দুই বছর ধরে মহামারির কারণে সমগ্র বিশ্বের জনজীবন যেমন লণ্ডভণ্ড হয়ে পড়েছে, তেমনি আর্থিক জীবনে নেমে এসেছে এক দুর্বিপাক। একই অবস্থা লন্ডনেও, যা বাংলাদেশি প্রবাসীদের দ্বিতীয় আবাসভূমি। কারি রেঁস্তোরা শিল্পে বাংলাদেশিদের একক অধিপত্য ছিল এখানে; এখন আর সেটা নেই। কভিডের কারণে ধস নেমে এসেছে শিল্পটিতে। ব্রিটিশ কারি অ্যাওয়ার্ড-এর পরিচালনা কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি এক জরিপ পরিচালনা করে দেখেছে, লন্ডনে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হলেও প্রাণচঞ্চল বাংলাদেশি ও ভারতীয় রেঁস্তোরাগুলোতে আগের মতো আর বিক্রি হচ্ছে না। এমনকি বিক্রির পরিমাণ কভিডের আগের সময়ের মতো আর হবে না বলেও আশঙ্কা রয়েছে। জরিপটি বলছে, গতবছরের লকডাউনের কারণে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বাংলাদেশি ও ভারতীয় রেঁস্তোরাগুলো। গড়ে আটটির মধ্যে সাতটি রেঁস্তোরায় বিক্রি কমেছে প্রায় ৮৬ শতাংশ। আয় কমেছে ৭৫ শতাংশ। প্রায় ৪২ শতাংশেরও বেশি রেঁ
সন্মান না পাওয়ায় ও বেতন কমানোর প্রতিবাদে বরিস জনসনের নার্সের পদত্যাগ

সন্মান না পাওয়ায় ও বেতন কমানোর প্রতিবাদে বরিস জনসনের নার্সের পদত্যাগ

নিউজ ডেস্ক: করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত বছর ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন যখন মৃত্যুর পথযাত্রী, তখন সেবা শুশ্রুসা দিয়ে সুস্থ করে তোলেন নিউজিল্যান্ড-বংশোদ্ভূত নার্স জেনি ম্যাকগি। করোনাকালীন সম্মুখসারির যোদ্ধা হিসেবে প্রাপ্য সম্মান না পাওয়ার বঞ্ছনা নিয়ে অবশেষে তিনি সরকারি চাকরি ছেড়েছেন বলে জানান। খবর আরব নিউজের। বরিস জনসন হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়ে বাসায় এসে প্রথম সংবাদ সম্মেলনেই ওই নার্সের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছিলেন। মুদ্রাস্ফীতির ফলে ব্রিটেনে নার্সদের বেতন কার্যত ১ শতাংশ কমে যাওয়ায় রাগে-দুঃখে ম্যাকগি চাকরি থেকে ইস্তফা দেন। সোমবার ব্রিটেনের চ্যানেল-৪ টিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, সরকার আমাদের প্রাপ্য সম্মানটুকু পর্যন্ত দিচ্ছে না। এ কারণে হতাশা থেকে আমি চাকরি থেকে ইস্তফা দিয়েছি।
লকডাউনে দোকানপাট-শপিংমল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত

লকডাউনে দোকানপাট-শপিংমল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত

ঈদ পরবর্তী সময় রোববার (১৬ মে) থেকে দোকানপাট, শপিংমল খোলার কথা থাকলেও নতুন করে লকডাউন বা বিধি-নিষেধের সময় বাড়ানোর কারণে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রোববার (১৬ মে) গণমাধ্যমকে এই তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন। জানা গেছে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ এবং ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের কারণে চলমান লকডাউন বা বিধি-নিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘ঈদের আগে সরকার ১৬ মে পর্যন্ত লকডাউন বা বিধি-নিষেধের সময় নির্ধারণ করেছিল। কিন্তু এখন নতুন করে আরও সময় বাড়ানো হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে আপাতত দোকান খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে না। বন্ধ থাকবে। তবে, সরকারের সঙ্গে পরিস্থিতি বিবেচনায় পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’ এদিকে, লকডাউনের মধ
JS security