সম্পাদকীয়

আজ ‘কাশ্মীর বন্ধীত্বের ও অধিকার হারানোর-১মাস

এস এম ওয়াহিদুল ইসলামঃ- ভারতীয় উগ্রবাদী হিন্দুদের প্রতিনিধিত্বকারী মোদি সরকারের একতরফাভাবে বিশেষ মর্যাদা -সম্পন্ন স্বায়ত্তশাসিত একমাত্র মুসলিম রাজ্য কাশ্মীরের মর্যাদা কেড়ে নেওয়ার আজ ১মাস পূর্ণ হলো। পৃথিবীর ভূ-স্বর্গ খ্যাত কাশ্মীর এখন জ্বলছে সাম্প্রদায়িকতার আগুনে। কাশ্মীরের আকাশ এখন বারুদের ঝাঁঝালো উৎকট গন্ধে উপত্যকার জনগোষ্ঠী শ্বাসরুদ্ধ! মজলুম মুসলিম জনগোষ্ঠীর আর্তচিৎকার ইতারে ছড়িয়ে ধ্বনিত হচ্ছে বিশ্বময়-! কিন্তু বিশ্বমানবতার ফেরিওয়ালারা আশ্চর্যজনক নিরবতা পালন করছে! তারচেয়ে অবাক করা বিষয় মুসলিম বিশ্বের ধৃষ্টতাপূর্ণ উদাসীনতা! উম্মাহর হ্নদয়ের রক্তক্ষরণ ঘটেছে ৫আগষ্টের পরে মধ্যপ্রাচ্যের দুই মুসলিম রাষ্ট্রের মোদি'কে তাদের রাষ্ট্রীয় সম্মান প্রদান। একমাত্র মুসলিম প্রতিবেশী পাকিস্তান শুরু থেকেই প্রতিবাদে উচ্চকণ্ঠ। তুরস্ক ও মালয়েশিয়া এবং ইরান পাকিস্তানের পাশে থেকে কাশ্মীরীদের অধিকার কেড়ে

শিশু-কিশোরদের প্রযুক্তির অবাধ ব্যবহারে অভিভাবকদের সচেতনতা আবশ্যক!

সম্পাদক গ্লোবাল সিলেট :- আজকের শিশুরা আগামী দিনের কর্ণধার। শিশুরা শিক্ষা-স্বাস্থ্যে, চিন্তা-চেতনায়, মনন ও মানসিকতায় যত উন্নত হবে ভবিষ্যত্ জাতি তত সমৃদ্ধ হবে। কিন্তু আজকালকার সময়ে শিশুদের সুস্থ মানসিকতা নিয়ে গভীর উদ্বিগ্ন বেশির ভাগ শিশু গবেষক, উদ্বিগ্ন সচেতন মহল, উদ্বিগ্ন অভিভাবকরা। আর এই উদ্বেগের সামনে যে বিষয়টি চলে আসে তা হলো মোবাইল ও প্রযুক্তির অযাচিত ব্যবহার।প্রযুক্তি আমাদের সামাজিক, অর্থনৈতিক, রাজনৈতিক উন্নয়নে নিঃসন্দেহে অপরিহার্য। নিঃসন্দেহে প্রযুক্তির বহুমাত্রিক দিক রয়েছে। প্রযুক্তির অনেক অনেক ভালো দিক যেমন রয়েছে, রয়েছে তেমনি দুই একটি মন্দ দিকও। তার মধ্যে একটি ক্ষুদ্র দিক নিয়েই আমি আলোচনা করতে চাচ্ছি।মানব শিশুর মন কাঁদামাটির মতোই কোমল থাকে। শিশুকে যেভাবে, যে পরিবেশে গড়ে তোলা হবে শিশু সেভাবেই বেড়ে উঠবে। কাঁদামাটি যতটা নরম থাকে এই কাঁদামাটি দিয়ে গড়া ইট কিন্তু ততটাই শক্ত হয় অর্থাত্ পর
JS security