স্বাস্থ্য

ইংল্যান্ডে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের কারনে ২১ জুন লকডাউন প্রত্যাহার দেরি হতে পারে

ইংল্যান্ডে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের কারনে ২১ জুন লকডাউন প্রত্যাহার দেরি হতে পারে

আগামী সোমবার থেকে ইংল্যান্ডে লকডাউন আরো শিথিল হচ্ছে। তবে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন ইংল্যান্ডে আগামী ২১ জুন থেকে লকডাউন পুরোপুরি প্রত্যাহারের যে পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছিলো তা ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টের কারনে মারাত্মক বাধার সৃস্টি হতে পারে। তিনি বলেন, যদি এই ধরনটি উল্লেখ্যযোগ্য হারে সংক্রমনযোগ্য হিসেবে পাওয়া যায় তবে কঠোর বিধিনিষেধের মুখোমুখি হতে হবে বাসিন্দাদের। ভারতীয় নতুন ধরনের বিপদজনক করোনা ভাইরাসের কারনে ব্রিটেনে ৫০ উর্ধদের মধ্যে কিছু মানুষকে ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ ১২ সপ্তাহের পরিবর্তে ৮ সপ্তাহের মধ্যে দেয়া হবে। ইংল্যান্ডের জাতীয় পরিসংখ্যানের হিসেব মতে গত সপ্তাহে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুন বৃদ্ধি পেয়েছে। এখন পর্যন্ত ৪ হাজারের বেশি মানুষের দেহে এই ধরন ধরা পড়েছে, যাদের সংস্পর্শে ছিলো আরো ১৪ হাজার মানুষ। যার কারনে ইংল্যান্ডের ১৫টি এলাকা
টিকা গ্রহণকারীদের মাস্ক ছাড়া থাকার অনুমতি দিল যুক্তরাষ্ট্র

টিকা গ্রহণকারীদের মাস্ক ছাড়া থাকার অনুমতি দিল যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনাভাইরাসের টিকা গ্রহণকারীদের ঘরে-বাইরে বেশিরভাগ জায়গায় মাস্ক ছাড়া থাকার অনুমতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এই ঘোষণাকে আমেরিকার জন্য এক মহান দিন হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। বৃহস্পতিবার ওভাল অফিসে রিপাবলিকান আইনপ্রণেতাদের সঙ্গে মাস্ক খুলে ফেলেন তিনি। বিবিসি জানিয়েছে, নতুন নির্দেশনায় বেশিরভাগ জায়গায় ঘরের ভেতরে বা বাইরে মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতা শিথিল করা হয়েছে। তবে জনাকীর্ণ বাস, প্লেন এবং হাসপাতালে তা পরতে বলেছেন মার্কিন কর্মকর্তারা। যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্রের (সিডিসি) সর্বশেষ নির্দেশনায় বলা হয়েছে, পূর্ণ টিকা গ্রহণকারীরা শারিরীক দূরত্ব মেনে চলাও শিথিল করতে পারে। হোয়াইট হাউসের রোজ গার্ডেনে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসকে নতুন এই নির্দেশনা মেনে চলতে দেখা যায়। পুরোপুরি টিকা ন
বিধিনিষেধ আরও ৭ দিন বাড়ছে

বিধিনিষেধ আরও ৭ দিন বাড়ছে

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ রোধে চলমান লকডাউনের (বিধিনিষেধ) মেয়াদ আরও ৭ দিন অর্থাৎ ২৩ মে পর্যন্ত বাড়ছে। বৃহস্পতিবার (১৩ মে) জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এ তথ্য জানান। আগামী ১৬ মে মেয়াদ বাড়ানোর প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী। কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে গত ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে আটদিনের কঠোর লকডাউন শুরু হয়। পরে তিন দফা লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয়। সেই মেয়াদ শেষ হবে আগামী ১৬ মে (রোববার) মধ্যরাতে। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বিধিনিষেধের জন্য পরীক্ষা কম হচ্ছে, শনাক্তও কম হচ্ছে। এটা সায়ন্সের মতো, আমরা যখন কঠোরতা দিলাম, আমাদের জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা গত মাসের ১৫ তারিখের দিকে বলেছিলেন মে মাসের প্রথম সপ্তাহের দিকে এটা কমতে থাকবে। ঠিকই সেটা কমেছে। কিন্তু আমাদের বাস্তবতার নিরিখে দোকানপাট খুলে দিতে হলো, সেক্ষেত্রে আমরা দেখছি অনেক মানুষ বাইরে যাচ্ছে। শতভাগ
মানুষ সুরক্ষা মানল না, চলে গেল যে যেমনে পারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মানুষ সুরক্ষা মানল না, চলে গেল যে যেমনে পারে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা সংবাদদাতা: স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, করোনা পরিস্থিতি মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে আছে। মানুষ যেভাবে বাড়িতে গেল, তাতে আমরা খুবই মর্মাহত হলাম। সরকার তো চেষ্টা করেছে মানুষকে সুরক্ষিত রাখার। সে জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছিল। কিন্তু মানুষ সেই সুরক্ষা মানল না। চলে গেল যে যেমনে পারে। বুধবার উপহার হিসেবে বাংলাদেশকে চীনের দেওয়া পাঁচ লাখ ডোজ করোনার টিকা হস্তান্তর উপলক্ষে রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় অনুষ্ঠিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা এটি আশা করব, তারা যেন নিজের জায়গায় গিয়ে বেশি ঘোরাফেরা না করেন। তারা যেন ভাইরাসটা ছড়িয়ে না দেন। আমরা আল্লাহ তাআলার কাছে দোয়া করি, যাতে ভাইরাসটি ছড়িয়ে না যায়। তিনি বলেন, এই দুঃসময়ে আমাদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিন পিং ও দেশটির নাগরিকদের ধন্যবাদ জানাই। আমরাও চীনের পাশে দাঁড়িয়েছিলাম, য
গোবরে করোনা মুক্তি: চিকিৎসকদের সতর্কবার্তা

গোবরে করোনা মুক্তি: চিকিৎসকদের সতর্কবার্তা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনা থেকে রক্ষায় গোবরের কার্যকারিতা নিয়ে সতর্ক করেছেন ভারতের চিকিৎসকেরা। রয়টার্সের প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে। চিকিৎসকরা বলছেন, করোনা প্রতিরোধে গোবরের কার্যকারিতা নিয়ে কোনো বিজ্ঞানভিত্তিক প্রমাণ নেই। এমনকি এতে অন্যান্য রোগ ছড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে।করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে বেসামাল ভারত। কিছুতেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না করোনা পরিস্থিতি। অনেক ভারতীয় মনে করেন, শরীরে গোবর মাখলে করোনার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে। অনেকে ইতিমধ্যে করোনার হাত থেকে বাঁচতে শরীরে গোবর মাখা শুরু করে দিয়েছে। গুজরাটের কিছু লোকের বিশ্বাস, গরুর গো-মূত্র ও গোবর দিয়ে এক সপ্তাহ শরীর ঢেকে রাখলে শরীরে রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। এতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়ানোর পাশাপাশি আরোগ্যও লাভ হয়। এ প্রসঙ্গে ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের ন্যাশনাল প্রেসিডেন্ট ডা. জেএ জয়ালাল বলেন, করোনার বির
করোনার ভারতীয় ধরন আজ বিশ্বের উদ্বেগ: ডব্লিউএইচও

করোনার ভারতীয় ধরন আজ বিশ্বের উদ্বেগ: ডব্লিউএইচও

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নতুন করে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের ভারতীয় ধরনকে ‘বিশ্বের উদ্বেগ’ হিসেবে চিহ্নিত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সোমবার সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির কারিগরি কমিটির প্রধান মারিয়া ফন কারখোভ বলেন, ‘আমরা বিশ্বজুড়ে একে ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন হিসেবে চিহ্নিত করেছি।’তিনি জানান, ভারত ভ্যারিয়েন্ট এবং এর তিনটি সাব টাইপের বিষয়ে আরও তথ্য মঙ্গলবার পাওয়া যাবে। প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে করোনাভাইরাসের এই ধরনটির অতি সংক্রামক হওয়ার ইঙ্গিত মিলেছে বলে ডব্লিউএইচও জানিয়েছে।প্রায় দেড় বছর আগে মানুষে সংক্রমিত হওয়া নতুন করোনাভাইরাস রূপ বদল করে চলছে। এর মধ্যে গত বছর ভারতে এর যে পরিবর্তিত রূপ শনাক্ত হয়েছে, তার আনুষ্ঠানিক নাম বি.১.৬১৭ হলেও এটি ‘ইন্ডিয়া ভ্যারিয়েন্ট’ নামেই পরিচিতি পেয়েছে।প্রায় দুই ডজন দেশে পৌঁছেছে এই ধরনটি; এটার তিনটি ‘সাব টাইপ’র মধ্যে একটি বাংলাদেশেও
টাকায় মিললো করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি

টাকায় মিললো করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি

ঢাকা সংবাদদাতা: বাংলাদেশের ব্যাংকনোটে করোনা ভাইরাসের আরএনএর উপস্থিতি পাওয়া গেছে বলে দাবি করেছে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) একদল গবেষক। আজ সোমবার যবিপ্রবি’র প্রশাসনকি ভবনের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত এক সাংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর ও জিনোম সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন এ তথ্য জানান। অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, গবেষক দল ব্যাংকনোটে ৭২ ঘণ্টা পর্যন্ত ভাইরাসের এন-জিনের উপস্থিতি এবং ৮-১০ ঘণ্টা পর্যন্ত ওআরএফ জিনের স্থায়িত্ব শনাক্ত করতে পেরেছেন।
খালেদা জিয়ার দণ্ড মওকুফের এখতিয়ার রাষ্ট্রপতির’

খালেদা জিয়ার দণ্ড মওকুফের এখতিয়ার রাষ্ট্রপতির’

  ঢাকা সংবাদদাতা: সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দণ্ড মওকুফের এখতিয়ার রাষ্ট্রপতির রয়েছে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) প্রধান আইন কর্মকর্তা মো. খুরশিদ আলম খান। রোববার বিকালে ৫টার দিকে খালেদা জিয়ার বিদেশে যাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে গণমাধ্যমকে তিনি এ তথ্য জানান। খুরশিদ আলম বলেন, এটা চাইলে তারা আদালতে যেতে পারেন। সেখানে আদালতের ইচ্ছা, তাকে বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দেবে কি-না। বিদেশ যাওয়ার অনুমতি দেয়া সরকারের এখতিয়ারে নেই। আইন মন্ত্রণালয় সঠিক সিদ্ধান্তই দিয়েছেন। তিনি বলেন, যদি দণ্ড মওকুফের বিষয় আসে তাহলে রাষ্ট্রপতির কাছে যেতে হবে। যদিও এর আগেও দুদকের আইনজীবী বার বার বলে আসছিলেন, দুদকের মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে যেতে হলে আদালতের অনুমতি নিয়েই যেতে হবে। এর আগে বিকেলে আইনমন্ত্রী আনিসু
বাংলাদেশিদের মালয়েশিয়া প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

বাংলাদেশিদের মালয়েশিয়া প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে বাংলাদেশি নাগরিকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মালয়েশিয়া। আগামী ৮ মে থেকে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। শুক্রবার (৭ মে) ঢাকার মালয়েশিয়ান হাইকমিশন এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে। এতে বলা হয়, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বাংলাদেশসহ কয়েকটি দেশের মালয়েশিয়ায় প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। আগামী ৮ মে থেকে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে। হাইকমিশন জানায়, নিষেধাজ্ঞা মতে কোনো বাংলাদেশি নাগরিকসহ বিদেশি নাগরিক সরাসরি ফ্লাইট বা ট্রানজিটেও মালয়েশিয়া ভ্রমণ করতে পারবেন না। তবে বাংলাদেশে অবস্থানরত মালয়েশিয়ান নাগরিকদের প্রবেশ করতে দেওয়া হবে। এক্ষেত্রে তাদের অবশ্যই ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন মানতে হবে। করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে বাংলাদেশসহ আশেপাশের দেশগুলোর প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে মালয়েশিয়া। গত বুধবার এক বিবৃতিতে মালয়েশিয়ান নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রী দাতুক
ভারতে একদিনে শনাক্ত ৪ লাখ ১৪ হাজার; মৃত্যু ৪ হাজার

ভারতে একদিনে শনাক্ত ৪ লাখ ১৪ হাজার; মৃত্যু ৪ হাজার

  আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কোভিড-১৯ মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিপর্যস্ত বিশ্ব। রোজ আগের দিনের রেকর্ড ভেঙে নতুন রেকর্ড গড়ছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড গড়েছে। এ দিন ভারতে ৪ লাখ ১৪ হাজার ১৮৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে, যা আগের দিনের তুলনায় ২ হাজার বেশি। একদিনে এত বেশি আক্রান্তের ঘটনা আর কখনও ঘটেনি। আর এই সময়ে মারা গেছেন ৩ হাজার ৯১৫ জন। এটিই দেশটিতে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড। শুক্রবার ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এই তথ্য দিয়েছেন দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি। টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, ভারতে এ নিয়ে টানা ১০ দিনে গড়ে ৩ হাজারের বেশি করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হলো। দেশটিতে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ২ লাখ ৩৪ হাজার ৬৬ জন। আর মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে
JS security